গুগল অ্যাডস কোয়ালিটি স্কোর কুইকলি ইম্প্রোভ করার ৭টি টিপস

7 Tips to Quickly Improve Google Ads Quality Score
Share This Post

গুগল অ্যাডস, পেইড মার্কেটিং এর সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত টেকনিক। আপনার অ্যাডস গুলো আপনার টার্গেটেড অডিয়েন্স এর কাছে পৌঁছে দেওয়া এবং অ্যাডস ক্লিকের মাধ্যমে কনভার্সন রেট বাড়ানো গুগল অ্যাডস এর উদ্দেশ্য। তবে এই উদ্দেশ্য তখনই সফল হবে যখন এটা ফাস্ট গ্রো করবে এবং টার্গেটেড লোকেশনে শো করবে। 

গুগল অ্যাডস কোয়ালিটি স্কোর কুইকলি ইম্প্রোভ করার ৭টি টিপস

এজন্য গুগল অ্যাডস এর কোয়ালিটি স্কোর ইম্প্রুভ করা একটা ইম্পর্ট্যান্ট ইস্যু। Google অ্যাডস এর কোয়ালিটি স্কোর আপনার অ্যাডস প্রচারের সাকসেস নির্ধারণে একটা গুরুত্বপূর্ণ রোল প্লে করে। একটা হাই কোয়ালিটি স্কোর শুধুমাত্র পার ক্লিক এর খরচই কমায় না,  পাশাপাশি কিন্তু বিজ্ঞাপনের লোকেশন সিলেকশন এবং ভিজিবিলিটি ও ডেভেলপ করে। 

এই আর্টিকেল এ , আপনার গুগল অ্যাডস এর কোয়ালিটি স্কোর খুব দ্রুত ইম্প্রুভ করার জন্য 

৭ টি কার্যকর টিপস নিয়ে আলোচনা করব।  

গুগল অ্যডস কোয়ালিটি স্কোর ইম্প্রুভমেন্ট টিপস :

গুগল অ্যাডস এর কোয়ালিটি স্কোর ইম্প্রুভ করার প্রোসেসটা কন্টিনিউয়াসলি চালিয়ে যেতে হবে এবং একটি সিস্টেমেটিক ওয়ে-তে আগাতে হবে। 

১৷ কী-ওয়ার্ড প্রাসঙ্গিকতা বা রিলেভ্যান্স: 

আপনার আ্যডস কপি এবং ল্যান্ডিং পেইজের সাথে আপনার কীওয়ার্ড গুলো কি ম্যাচ করছে?  অর্থাৎ আপনি যে বিষয়টি নিয়ে কাজ করছেন, আপনার কি ওয়ার্ড সেই বিষয়ের সাথে কানেক্ট করে বিড করা হয়েছে কিনা? Google এর মতে, ৭ বা তার বেশি কী-ওয়ার্ড রিলেভ্যান্ট স্কোর বজায় রাখা আপনার কোয়ালিটি স্কোরকে উল্লেখযোগ্যভাবে ইফেক্ট করতে পারে। 

কী-ওয়ার্ড প্রাসঙ্গিকতা বা রিলেভ্যান্স

অর্থাৎ কি ওয়ার্ড যত বেশি রিলেভ্যান্ট বা প্রাসঙ্গিক হবে, আপনার কোয়ালিটি স্কোর এর ওপর সেটা সরাসরি প্রভাব ফেলবে। তাই, আপনার বিজনেস, প্রোডাক্ট বা সার্ভিসের চেইঞ্জ গুলো রিফ্লেক্ট করতে আপনার কি-ওয়ার্ড লিস্ট নিয়মিত অডিট করুন এবং আপডেট করুন। 

২. অ্যাড কপি অপ্টিমাইজ করুন: 

আকর্ষণীয় অ্যাড কপি তৈরি করুন যেগুলো আপনার টার্গেটেড অডিয়েন্স কে খুব ফাস্ট অ্যাট্র্যাক্ট করবে। WordStream এর একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, হাই ক্লিক-থ্রু রেট (CTR) আছে এমন অ্যডস গুলোর কোয়ালিটি স্কোর বেশি থাকে৷ 

অ্যাড কপি অপ্টিমাইজ করুন

ইউজার এক্সপেরিয়েন্স ডেভেলপ করতে এবং আপনার CTR বাড়াতে আকর্ষণীয় শিরোনাম, ক্লিয়ার কল-টু-অ্যাকশন এবং প্রাসঙ্গিক বা রিলেভ্যান্ট অ্যড এক্সটেনশন ব্যবহার করুন।

৩. ল্যান্ডিং পেইজ এক্সপেরিয়েন্স :

Google একটি সাধারণত পজিটিভ ল্যান্ডিং পেইজ এক্সপেরিয়েন্স কে বেশি প্রাধান্য দেয়। অর্থাৎ আপনার ল্যান্ডিং পেইজ কতটা ফাস্ট, কত দ্রুত সার্ভিস দিচ্ছে, এটা বাফার করছে কিনা, অথবা লোডিং প্রবলেম হচ্ছে কিনা এগুলো মাথায় রেখে স্কোরিং করে। স্ট্যাটিসটিক্স এ দেখা যায়, যেসব পেইজ গুলো লোড হতে তুলনামূলক কম সময় নেয়, পেইজে বাফার কম করে, কোনো রকম অতিরিক্ত কুকিজ প্রবলেম করে না, সেই পেইজ গুলোর কনভার্শন রেট অনেক বেশি হয়। 

ল্যান্ডিং পেইজ এক্সপেরিয়েন্স

তাই ফাস্ট স্পিড পেতে, মোবাইলের ইউজারদের স্মুথ এক্সপেরিয়েন্স দিতে, এবং অ্যাডস গুলোর মান উন্নত করতে আপনার ল্যান্ডিং পেইজ গুলো অপটিমাইজ করুন। এগুলো আপনার গুগল অ্যাডস এর কোয়ালিটি স্কোর দ্রুত বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে।  

 ৪. অ্যাড এক্সটেনশন মেথড :

অতিরিক্ত ইনফরমেশন প্রোভাইড করতে এবং আপনার অ্যডস এর দৃশ্যমানতা বা ভিজিবিলিটি বাড়াতে অ্যড এক্সটেনশন গুলো ব্যবহার করুন। Analysis এর একটি সমীক্ষা অনুসারে,অতিরিক্ত এক্সটেনশন আছে এমন অ্যাডস গুলের কোয়ালিটি স্কোর অনেক বেশি হয়ে থাকে। তাছাড়া এদের পারফরম্যান্স মেট্রিক্স ও অনেক বেশি উন্নত থাকে৷ 

অ্যাড এক্সটেনশন মেথড

আপনার প্রোমোশন ক্যাম্পেইনের  জন্য কোনটি সবচেয়ে ভালো কাজ করে তা খুঁজে বের করতে বিভিন্ন এক্সটেনশন যেমন : সাইট লিঙ্ক, কল-আউট এবং স্ট্রাকচার্ড স্নিপেট এক্সটেনশন নিয়ে গবেষণা করুন।

৫. কোয়ালিটি স্কোর এবং অ্যাডস এর লোকেশন:

পরিসংখ্যানগত বিশ্লেষণে দেখা যায়, অ্যাডস এর লোকেশন এবং কোয়ালিটি স্কোর এর মধ্যে একটি ক্লিয়ার সম্পর্ক আছে। হাই কোয়ালিটি স্কোর অনেক সময়েই ডিপেন্ড করে অ্যাকুরেট লোকেশন এর ওপর। অর্থাৎ অ্যাডস গুলো কোথায় লোকেট করছে এটার ওপর নির্ভর করে এটাকে অডিয়েন্সরা কিভাবে নিবে। এর প্রতি ইমপ্রেসন টা কেমন হবে। 

কোয়ালিটি স্কোর এবং অ্যাডস এর লোকেশন

এজন্য অ্যডস বসানোর আগে কিংবা কি ওয়ার্ড বিড করে ফেলার আগেই আপনার অ্যাডস গুলোর লোকেশন সিলেক্ট করে নিন। এতে করে আপনার কোয়ালিটি স্কোর বাড়ার সাথে সাথে আপনার অ্যাডস এর ক্লিক থ্রু রেট এবং কনভার্সন রেট দুটো ই বৃদ্ধি পাবে।  

৬. নেগেটিভ কী ওয়ার্ড অপ্টিমাইজেশান:

অপ্রাসঙ্গিক ট্র্যাফিক ফিল্টার করতে আপনার নেগেটিভ কী ওয়ার্ড গুলোর লিস্ট নিয়মিত অপটিমাইজ এবং আপডেট করুন। SEMrush-এর একটি সমীক্ষা-তে দেখা গেছে যে,ক্যাম্পেইন গুলোতে একটিভি নেগেটিভ কি ওয়ার্ড গুলো অপটিমাইজ করা হয়, সেই প্রোমোশন ক্যাম্পেইনের ক্লিক-থ্রু রেট বেশি এবং তাদের প্রতি ক্লিকে খরচ ও অনেক কম হয়। এই অপ্টিমাইজেশান স্ট্র্যাটেজি সময়ের সাথে সাথে হাই-কোয়ালিটি স্কোর বিল্ডিং এ অবদান রাখতে পারে।

নেগেটিভ কী ওয়ার্ড অপ্টিমাইজেশান

৭. পারফরম্যান্স ট্র্যাকিং এবং অ্যানালাইসিস :

আপনার প্রমোশন ক্যাম্পেইনের পারফরম্যান্স ট্র্যাক করতে এবং ইমপ্রুভমেন্ট লাগবে এমন সাইট গুলো ডিটেক্ট করার জন্য সাইট গুলো চিহ্নিত করুন৷ এক্ষেত্রে বিভিন্ন এনালাইটিক টুলস ইউজ করতে পারেন৷ বর্তমানে অ্যাডস এনালাইসিস, টার্গেট অডিয়েন্স অ্যানালাইসিস ও পারফরম্যান্স অ্যানালাইসিস এর জন্য অনেক উন্নত টুলস পাওয়া যাচ্ছে, যেমন গুগল এনালাইটিক্স। 

পারফরম্যান্স ট্র্যাকিং এবং অ্যানালাইসিস

গুগল অ্যাডস মূলত, কোয়ালিটি স্কোর এর এলিমেন্ট গুলো এবং এর টোটাল মেট্রিক্স এর একটা ডিটেইলড ইনসাইট প্রোভাইড করে। আপনি এখান থেকেই সরাসরি আপনার পারফর্মেন্স এর মেট্রিক্স গুলো যাচাই করে নিতে পারবেন। কিংবা বিভিন্ন সেক্টর এ কি কি মোডিফিকেশন আনতে হবে সেগুলোও মার্ক করে নিতে পারবেন। তাই একটা হাই কোয়ালিটি স্কোর পেতে আপনার প্রোমোশন ক্যাম্পেইন টা নিয়মিত অপটিমাইজ করুন ও আপডেটেড রাখুন। 

উপসংহার:

গুগল অ্যাডস এর কোয়ালিটি স্কোর ইম্প্রুভ করা একটা কন্টিনিউয়াস প্রোসেস। অর্থাৎ এর স্কোর ডেভেলপ করার জন্য যেমন নিয়মিত কাজ করে যেতে হবে। তেমনি এই হায়ার স্কোর ধরে রাখার জন্যও রেগুলার পেজ অপটিমাইজেশন, টেস্টিং, মোডিফিকেশন ও আপডেট করতে হবে। মোট কথা একটা সিস্টেমেটিক সিকুয়েন্স এ আগাতে হবে।

তাই কী ওয়ার্ড রিলেভ্যান্স এর উপর ফোকাস করে, অ্যাডস কপি গুলো অপ্টিমাইজ করে, একটা পজিটিভ  ল্যান্ডিং পেইজ এক্সপেরিয়েন্স  নিশ্চিত করে, অ্যডস এর এক্সটেনশন গুলো ইউজ করে আপনার ওভারঅল পারফরম্যান্স ইম্প্রুভ করুন৷ তবেই সাকসেসফুলি ও কুইকলি আপনার গুগল অ্যাডস এর কোয়ালিটি স্কোর ইম্প্রুভ করতে পারবেন।  

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More To Explore
কাস্টমার সার্ভিস স্কিলস ইম্প্রোভ করার ৭টি টিপস
Marketing

কাস্টমার সার্ভিস স্কিলস ইম্প্রোভ করার ৭টি টিপস

কাস্টমার সার্ভিস হল বিজনেস সুদুরপ্রসারি করার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ স্টেপ। কাস্টমারই আপনার বিজনেস এর লক্ষ্য, আপনার প্রোফিট এর উৎস। তাই কাস্টমার সন্তুষ্ট করতে, একটা ওয়েল স্ট্র্যাকচারড

মার্কেটিং এর জন্য টুইটার অ্যালগরিদম কিভাবে ইউজ করবেন
Marketing

মার্কেটিং এর জন্য টুইটার অ্যালগরিদম কিভাবে ইউজ করবেন

আপনি কি টুইটারের মাধ্যমে এনগেজমেন্ট বাড়াতে এবং লিড তৈরি করতে চাইছেন? অথবা সম্ভবত আপনি আপনার ব্র্যান্ড রেপুটেশন বাড়াতে টুইটার অ্যালগরিদম নেভিগেট করাকে বেশ চ্যালেঞ্জিং মনে