৬টি ভিন্নধর্মী ডিজিটাল ব্যবসার আইডিয়া

Share This Post

আজকের দিনে অনলাইন বা ডিজিটাল ব্যবসা উপার্জনের একটি জনপ্রিয় মাধ্যম। বিভিন্ন রকম ব্যবসা রোজ চালু হচ্ছে অনলাইনে। কেউ ফেসবুক পেজে, কেউ বড় পরিসরে ওয়েবসাইটে ব্যবসা করছেন। সব ব্যবসা কি লাভজনক হচ্ছে? একই রকম ব্যবসা যখন আরও দশজন করছে তখন সেই একই ধরণের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান খুলে কীভাবে নজরে আসবেন? তার চেয়ে আপনার বুদ্ধিটি যদি হয় একটু আলাদা কিন্তু মানুষের কাজে আসবে এরকম? আসুন ব্যবসার ভিন্ন ভিন্ন কিছু আইডিয়ার সাথে পরিচিত হই।

১। ওয়েব ডিজাইনিং: আপনার যদি ওয়েব ডিজাইন এবং HTML সম্পর্কে জ্ঞান থাকে তাহলে ওয়েব ডিজাইন করার কাজটিকে ডিজিটাল ব্যবসা হিসেবে নিতে পারেন। এখন এমন অনেকে অনলাইনে ডিজিটাল ব্যবসা করছেন যারা অচীরেই ওয়েবসাইট খুলতে আগ্রহী। যাদের ওয়েবসাইট আছে, তাদেরও অনেকের সাইট অনেক দূর্বল ডিজাইনের কারণে আকর্ষণীয় হচ্ছে না। এই বাজারটি ধরতে পারেন কিনা দেখুন।

২। রিজিউম লেখা: চাকরি সন্ধানী একজন ব্যক্তির প্রথম প্রয়োজন ভাল একটি রিজিউম এর। আইডিয়াটি হয়ত অদ্ভুত লাগছে আপনার। কিন্তু একটি ভাল, আকর্ষণীয় রিজিউম কিন্তু সবাই লিখতে পারে না। নীলক্ষেতের ফটোকপির দোকানে রিজিউম লেখায় এমন কত বেকার যুবক-যুবতী। যাদের দিয়ে লেখায় তাদের নিজেদের শিক্ষার দৌড় আর কতটুকু? আপনি একজন উচ্চশিক্ষিত মানুষ হয়ে যদি এটিকে পেশা হিসেবে নেন কেমন হবে ভেবে দেখুন তো!

৩। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং: অনেক পেইজে বা সাইটে প্রডাক্টের নীচে আমরা কাস্টমারের কমেন্ট দেখি। কমেন্ট পড়ে ক্রেতা আরও আগ্রহী হয়। একজন ক্রেতা যখন পণ্য সম্পর্কে আরেকজন ক্রেতার ইতিবাচক বক্তব্য পড়েন তখন পণ্যটির যাথার্থতার আর কোন সার্টিফিকেট লাগে না। এমন অনেক সাইট আছে যারা পজেটিভ কমেন্টের জন্য টাকা দেয়। এমন সাইট খুঁজে বের করতে পারেন। কোন পেইজ বা সাইট ছাড়াই আয় হবে আপনার।

৪। নিউট্রিশন কোচ: এই পেশাটি একটু জটিল। এরকম একটি ব্যবসায় আপনাকে মানুষের স্বাস্থ্য এবং পুষ্টি সঙ্ক্রান্ত তথ্যের জন্য অর্থের বিনিময়ে পরামর্শ দিতে পারেন। আপনি নিজে যদি নিউট্রিশনিস্ট নাও হন, একজন দক্ষ ব্যক্তিকে নিয়োগ দিন। এমন অনেক জিম ইন্সট্রাক্টর এবং প্রশিক্ষক আছেন যারা পার্ট টাইম হিসেবে এই কাজটি করতে রাজী হবেন। সাথে সাজসজ্জার পরামর্শ যদি যোগ করতে পারেন তাহলে তো কথাই নেই!

৫। ই-বুক লেখা: অনেক লেখক আছেন যারা বই লেখেন কিন্তু প্রকাশকরা তাদের বই প্রকাশ করছেন না বলে থেমে আছেন। মানুষ কিন্তু এখন কাগজের বই এর বাইরে অনলাইনে বই পড়তে আগ্রহী হচ্ছে। অনলাইনে খুবই কম খরচে ই-বুক হিসেবে নিজের লেখা প্রকাশ করতে পারেন। নিজের মেধাকে প্রকাশিত করে পরিচিতি বাড়াতে পারেন সহজেই।

৬। টেকনিকাল এসিস্ট্যান্ট: অনেক ছোটখাটো অনলাইন কোম্পানি আছে যাদের অনেক টেকনিক্যাল সমস্যা থাকে এবং প্রয়োজনে অন্যদের ফোন করে সাহায্য নিতে হয় তাদের। এটিকে ডিজিটাল ব্যবসা হিসেবে নিতে পারেন আপনি। টেকনিক্যাল সমস্যার সমাধান হওয়া সহজ কাজ নয়। আগে দক্ষতা অর্জন করতে হবে আপনাকে। বড় বড় সাইটগুলো এজন্য আলাদেভাবে লোক নিয়োগ করেন। স্বাধীন ব্যবসায়ী হিসেবে আপনি স্বল্প ব্যয়ে এই কাজটি করতে শুরু করলে অনেক ব্যবসায়ী আপনার ক্লায়েন্ট হয়ে যাবে দেখবেন।

ব্যবসা তো সবাই করে। ব্যবসার সমস্যা নিয়ে ব্যবসা করা কিন্তু আজকের সময়ের প্রয়োজন। একজন সফল ব্যবসায়ী হোক বা নতুন উদ্যোক্তা তাদের সবারই সাহায্যের প্রয়োজন হয়। আপনি হতে পারেন সেই সাহায্যকারী।

লেখিকা: আফসানা সুমী, তথ্যসূত্র: প্রিয় ডটকম।

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More To Explore
ডিজিটাল মার্কেটিং এ নিশ বেজড কম্পিটিটর রিসার্চ কিভাবে করবেন
Marketing

ডিজিটাল মার্কেটিং এ নিশ বেজড কম্পিটিটর রিসার্চ কিভাবে করবেন?

আপনার বিজনেস নিশ কি হবে? কি নিয়ে কাজ করবেন? বা কোন মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজিই এপ্লাই করবেন। সব কিছু সিলেক্ট করার আগে মোস্ট ইম্পর্ট্যান্ট ফ্যাক্ট হচ্ছে কম্পিটিটর

প্যাশনকে প্রিন্ট-অন-ডিমান্ড সাকসেস এ পরিণত করুন
Marketing

প্যাশনকে প্রিন্ট-অন-ডিমান্ড সাকসেস এ পরিণত করুন

জীবনে সাকসেসফুল হতে হলে অবশ্যই আপনাকে আপনার যেকোনো ধরনের কাজের প্রতি দৃঢ় প্যাশন গড়ে তুলতে হবে। আমাদের সকলের কিছু ভালো লাগার জিনিস রয়েছে যেমন ছবি আঁকা।