ফরেক্স ট্রেডিং কি?

Share This Post

ফরেক্স মার্কেট বা ফরেন এক্সচেঞ্জ মার্কেট হচ্ছে একটি নেটওয়ার্ক যেখানে কারেন্সি বেচাকেনা করা হয়। কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করে আপনি খুব সহজে এখান থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। ফরেক্স ট্রেডিং এর সবচাইতে ভিন্ন বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এই নেটওয়ার্কে প্রবেশ করতে কোন বিধি-নিষেধ নেই। তাই সফলতার পিছনে আপনার ভৌগলিক অবস্থান কখনোই বিপত্তি হয়ে দাঁড়াবে না।

অর্থ উপার্জনের ক্ষেত্রে ফরেক্স ট্রেডিং এমন একটি পদ্ধতি যেখানে কারেন্সি পেয়ার কেনা-বেচা করতে হয়। ফরেক্স মার্কেট হচ্ছে এমন একটি জায়গা যেখানে বেশীরভাগ অংশগ্রহনকারী হচ্ছে ব্যাংক অথবা আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো। অপরদিকে রিটেইল ট্রেডিং এর জন্য ইনভেস্টর মার্কেটে যুক্ত হতে পারে একজন ফরেক্স ব্রোকার এর মাধ্যমে যেখানে কিনা সকল লেনদেন একটি ইন্টার-ব্যাংক মার্কেটের মাধ্যমে ঘটে থাকে।

যদি আপনি এর মাঝে দেশের বাহিরে ভ্রমন করে থাকেন তাহলে আপনাকে সেই দেশের কারেন্সির সাথে নিজ দেশের কারেন্সির সাথে পরিবর্তন করতে হবে। আমরা সাধারন ব্যক্তিরা ফরেক্স মার্কেটে শুধুমাত্র তখনই ট্রানজেকশন করতে পারি।

আজকে আমরা জানব যে কিভাবে ফরেক্স ট্রেডিং প্রথম থেকে শুরু করতে হয় তার প্রতিটি ধাপঃ

ওটিসি মার্কেটের ভিতর লেনদেন এর ক্ষেত্রে কোন প্রকার সময় বা তারিখের বাধা নেই, আপনি চাইলে ২৪ ঘন্টাই লেনদেন করতে পারবেন। ফরেক্স মার্কেট মূলত তিন প্রকার হয়ে থাকে। যথাঃ 

১. ফিউচার ফরেক্স মার্কেটঃ একটি নির্দিষ্ট দামে কারেন্সি ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য এখানে একটি সেটেলমেন্ট করা হয়। এই ধরনের ফরেন এক্সচেঞ্জ কন্ট্রাক্ট সম্পূর্ণ বৈধ।

২. স্পট ফরেক্স মার্কেটঃ ইহা একটি ফিজিক্যাল ফরেক্স মার্কেট যেখানে ফরেন এক্সচেঞ্জ প্রোডাক্ট ক্রয়-বিক্রয় করা যায়। ইহা একটি ফিক্সড পয়েন্টে যেখানে একটি সেটেল টাইমের ভিতর এক্সচেঞ্জ করতে পারবেন।

৩. ফরয়ার্ড ফরেক্স মার্কেটঃ ইহা একটি এগ্রিমেন্ট যেখানে ফরেন কারেন্সি পেয়ার একটি নির্ধারিত দামে ক্রয়-বিক্রয় করা হয়। এই পদ্ধতিতে কারেন্সি পেয়ার প্রাইস পরবর্তী তারিখে বা ভবিষৎত তারিখেই সেট করা হয়ে থাকে।

বিগেইনারদের ক্ষেত্রে, ফরেক্স ব্রোকারদের ভিতর ট্রেডিং একাউন্ট দিয়ে শুরু করাটা একটি ভাল সিদ্ধান্ত হতে পারে যেখানে আপনি লো ডিপোজিট এমাউন্টে কাজ করতে পারেন।

কীভাবে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে আপনি ট্রেড করতে পারবেন ?

ফরেক্স মার্কেটে এর ভিতর বহু ধরনের কারেন্সি পেয়ার পাওয়া যায়। যাইহোক, তারা সকল একই পদ্ধতিতে কাজ করে থাকে। ট্রেডিশন্যালি, একজন ফরেক্স ব্রোকার দ্বারা বহু ফরেন এক্সচেঞ্জ ট্রাঞ্জেকশন হয়ে থাকে। এই সুযোগের সাথে সিএফডি ট্রেডিং মার্কেটে আপনি যুক্ত হতে পারবেন। আপনাকে শুধু মনে রাখতে হবে যে সিএফডি একটি লিভারেজড প্রোডাক্ট, তাই কোন প্রকার সম্পদ কেনা ছাড়াই আপনি পজিশন পেয়ে যাচ্ছেন। যদি আপনি সম্পদ না কিনে থাকেন তাহলে, আপনি যে পজিশনে যেতে চেয়েছিলেন সেখানে মার্কেট চলে আসবে। এছাড়া লিভারেজ প্রোডাক্ট আপনার প্রফিট মাক্সিমাইজ করতে সাহায্য করে থাকবে। কিন্তু আপনার প্রেডিকশন যদি ভুল হয় তাহলে সেটা মার্কেটে ক্ষতি নিয়ে আসবে।

ফরেক্স পেয়ার এর প্রকারভেদ?

ফরেক্স পেয়ারে প্রকারভেদ হয়ে থাকে লিকুইডিটির উপর নির্ভর করে থাকে, বেশীরভাগ পেয়ার ফ্রেন্ডলি ট্রেডার থেকেই আসে। ফরেক্স পেয়ারগুলো হচ্ছেঃ 

  • মেজর পেয়ার
  • মাইনর পেয়ার
  • ক্রস পেয়ার
  • এক্সটিক পেয়ার

উপসংহার

ট্রেডার এর জন্য, যাদের কাছে লিমিটেড ফান্ড রুয়েছে তারা কিছু স্ট্র্যাটেজি ফলো করবার মাধ্যমে। এছাড়াও একজন ট্রেডারকে অবশ্যই মাইক্রোইকোনোমিক্সের উপর ফোকাস থাকতে হবে কারেন্সির ভ্যালুর পরিবর্তন বোঝার জন্য। তাই আপনাকে যথেষ্ট পরিমান রিসার্চ করতে হবে কারন আপনাকে জানতে হবে যে কোথায় আপনি টাকা ইনভেস্ট করছেন।

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More To Explore
ডিজিটাল মার্কেটিং এ নিশ বেজড কম্পিটিটর রিসার্চ কিভাবে করবেন
Marketing

ডিজিটাল মার্কেটিং এ নিশ বেজড কম্পিটিটর রিসার্চ কিভাবে করবেন?

আপনার বিজনেস নিশ কি হবে? কি নিয়ে কাজ করবেন? বা কোন মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজিই এপ্লাই করবেন। সব কিছু সিলেক্ট করার আগে মোস্ট ইম্পর্ট্যান্ট ফ্যাক্ট হচ্ছে কম্পিটিটর

প্যাশনকে প্রিন্ট-অন-ডিমান্ড সাকসেস এ পরিণত করুন
Marketing

প্যাশনকে প্রিন্ট-অন-ডিমান্ড সাকসেস এ পরিণত করুন

জীবনে সাকসেসফুল হতে হলে অবশ্যই আপনাকে আপনার যেকোনো ধরনের কাজের প্রতি দৃঢ় প্যাশন গড়ে তুলতে হবে। আমাদের সকলের কিছু ভালো লাগার জিনিস রয়েছে যেমন ছবি আঁকা।