POD Marketing এর জন্য ৭টি বেস্ট সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম

POD Marketing এর জন্য ৭টি বেস্ট সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম
Share This Post

POD Marketing (Print-on-Demand) মার্কেটিং এর জন্য সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মগুলির ব্যবহার একটি গুরুত্বপূর্ণ স্ট্র্যাটেজি। যা আপনাকে আপনার প্রিন্ট অন ডিমান্ড পণ্যগুলি প্রচার করতে সাহায্য করবে। এই সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মগুলির মাধ্যমে আপনি আপনার পণ্যগুলির বিজ্ঞাপন, প্রমোশন এবং বিপণন করতে পারেন। 

যেহেতু ডিজিটালাইজেশন এর যুগে মানুষ ডিজিটাল প্লাটফর্ম গুলোতে বেশি একটিভ থাকে, আপনাকেও আপনার বিজনেসের একটি বড় সময় এখানে ব্যয় করতে হবে। কারণ, পপুলারিটির মূলমন্ত্র হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া। তাই নিচে, POD Marketing জন্যে আপনাকে এমনই পপুলার ৭টি সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মের উল্লেখ করা হলো:

১। Facebook

POD Marketing জন্যে ফেসবুক একটি প্রভাবশালী সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম যা আপনাকে লক্ষ লক্ষ ব্যবহারকারীর সাথে সংযুক্ত করে দিতে পারে খুব সহজে। আপনি আপনার পণ্যগুলি নিউজফিডে এড, প্রমোশনাল পোস্ট, ভিডিও বিজ্ঞাপন এবং পেজ তৈরির মাধ্যমে পাবলিশ করতে পারেন। এটি এমন একটি শক্তিশালী সামাজিক যোগাযোগ ও বিপণন প্ল্যাটফর্ম যা আপনাকে প্রিন্ট অন ডিমান্ড মার্কেটিং এ সাহায্য করতে পারে। 

1. Facebook

ফেসবুক কে বিশেষভাবে টার্গেট করা এবং প্রাধান্য দেওয়া যায় সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ও সোশাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের মাঝে সংযোগ স্থাপন করার জন্য। নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করে ফেসবুকে প্রিন্ট অন ডিমান্ড মার্কেটিং ক্ষেত্রে উপযুক্তভাবে ব্যবহার করতে পারেন:

পেজ তৈরি করুন

POD Marketing এর জন্যে একটি পেইজ মেইনটেইন করুন যেখানে প্রিন্ট অন ডিমান্ড সার্ভিসের বিষয়বস্তু, পণ্য বা পরিষেবা সরাসরি রিপ্রেজেন্ট করার জন্য আপনি একটি পেজ তৈরি করতে পারেন। এই পেজ এ আপনি প্রিন্ট অন ডিমান্ড পণ্যের সকল তথ্য, মূল্য এবং অর্ডার করার পদ্ধতি সম্পর্কে তথ্য দিতে পারেন।

পেজ তৈরি করুন

টার্গেট পাবলিক: ফেসবুকে আপনার টার্গেট মার্কেটিং করার জন্য আপনি ফেসবুক পেজে নিজের প্রিন্ট অন ডিমান্ড পণ্য বা পরিষেবার সাথে সম্পর্কিত পোস্ট করতে পারেন। প্রোপার POD Marketing এর ক্ষেত্রে টার্গেটিং এর তুলনা নেই। আপনি আপনার সকল টার্গেট পাবলিককে অনুপ্রাণিত করতে টার্গেটিং টুলস সাবজেক্ট ব্যবহার করতে পারেন, যেমন বয়স, অঞ্চল, লাইফস্টাইল ইত্যাদি।

টার্গেট পাবলিক

পেইড বিজ্ঞাপন ব্যবহার করুন: POD Marketing করতে আপনি আপনার পেজের জন্য ফেসবুক বিজ্ঞাপন ব্যবহার করতে পারেন। এই বিজ্ঞাপনগুলি আপনার টার্গেট পাবলিককে লক্ষ্য করে শো করা হবে  এবং তাদেরকে আপনার পেজ এর প্রতি আকর্ষিত করতে সাহায্য করবে।

২। Instagram:

ইনস্টাগ্রাম হলো একটি প্রচলিত ভিজুয়াল মিডিয়া প্লাটফর্ম যা প্রধানতঃ ছবি এবং ভিডিওর মাধ্যমে তথ্য আদান প্রদান করে। এখানে আপনি ফ্রি মার্কেটিং করে POD Marketing করতে পারবেন এবং অনেক সেল নিয়ে আসতে পারবেন। আপনি ইনস্টাগ্রামে একটি প্রোফাইল তৈরি করে আপনার পণ্যগুলি উপস্থাপন করতে পারেন এবং পেইড বিজ্ঞাপন দ্বারা আরো দীর্ঘদিনের মধ্যে লক্ষ লক্ষ ব্যবহারকারী অটোমেটিক বুক করতে পারেন।

ইন্সটাগ্রাম খুব দ্রুতগতিতে প্রসার লাভ করছে। তাই সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের মধ্যে এটি বেশ জনপ্রিয়, যা প্রিন্ট অন ডিমান্ড মার্কেটিং এর জন্যে ইউজ করা যেতে পারে। এটি আপনাকে সাধারণ ইউজারদের কাছে আপনার প্রিন্ট প্রডাকশনের জন্য ভাল একটি প্ল্যাটফর্ম হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। 

এটি একটি চমৎকার প্লাটফর্ম  যা আপনাকে আপনার প্রিন্ট অন ডিমান্ড প্রডাকশনের জন্য একটি পরিচিতি ও ব্রান্ড তৈরি করতে সাহায্য করতে পারে। আপনি ইন্সটাগ্রামে আপনার প্রিন্ট উৎপাদনের ছবি শেয়ার করতে পারেন, নতুন পণ্য বা অফার সম্পর্কিত জানাতে পারেন এবং আপনার কাস্টমারদের সাথে সংযুক্ত হতে পারেন।

ইন্সটাগ্রামের মাধ্যমে আপনি আপনার প্রিন্ট অন ডিমান্ড উৎপাদনকে আরও ব্যাপকভাবে প্রচার করতে পারেন এবং আপনার প্রোফাইলের মাধ্যমে ব্রান্ড মান ও প্রোডাক্ট গুলোর প্রচারণা করতে পারেন।

এছাড়াও, আপনি ইন্সটাগ্রামে কাস্টমারদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন যাতে আপনিন নিয়মিত  তাদের পরামর্শ ও মতামত পেতে পারেন। তাছাড়া, আপনি আপনার প্রিন্ট বিজনেসের স্যাম্পল ছবি দেখাতে পারেন, প্রমোশনাল পোস্ট শেয়ার করতে পারেন এবং ইনফরমেটিভ ক্যাপশন যোগ করতে পারেন যাতে আপনি আপনার বিজনেস কে কাস্টমারের সামনে সঠিকভাবে ব্যাখ্যা করতে পারেন।

৩। Twitter

টুইটার একটি মাইক্রোব্লগিং ও সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইট যা আপনাকে 280 ওয়ার্ড লিমিটের মধ্যে আপনার মতামত প্রকাশ করতে দেয়। আপনি আপনার প্রিন্ট অন ডিমান্ড পণ্যগুলি বিজ্ঞাপন, প্রচার এবং সামগ্রিক প্রমোশন করতে টুইটার ব্যবহার করতে পারেন।

Twitter

টুইটার প্রতিষ্ঠান এবং ব্যক্তিগত উদ্দেশ্যের জন্য একটি শক্তিশালী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসাবে পরিচিত। এটি একটি ছোট বা বড় ব্যবসার প্রচার এবং প্রমোশন স্ট্রাটেজিতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ হতে পারে। যা সহজেই অন ডিমান্ড মার্কেটিং জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে। নিম্নলিখিত ধাপগুলি অনুসরণ করে আপনি টুইটার ব্যবহার করে প্রিন্ট অন ডিমান্ড মার্কেটিং করতে পারেন:

টুইট প্রোফাইল তৈরি করুন: একটি প্রোফাইল তৈরি করার পর টুইটারে নাম, প্রোফাইল ছবি, বায়ো, ওয়েবসাইট লিঙ্ক এবং অন্যান্য ব্যক্তিগত ডেসক্রিপশন যুক্ত করুন।

টুইট প্রোফাইল তৈরি করুন:

ট্রেন্ডিং হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করুন: প্রিন্ট অন ডিমান্ড মার্কেটিং সংক্রান্ত আপনার টুইটগুলির জন্য ট্রেন্ডিং হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করুন। এটি আপনাকে আরও বেশি লোকের কাছে দেখা দেওয়ার সুযোগ করে দিবে। এবং আপনার টুইটগুলির ভিজিবিলিটি বাড়ানোর সাথে সাথে আপনার প্রিন্ট অন ডিমান্ড মার্কেটিং সেন্টারের উপর রিচ বাড়াতে সাহায্য করে।

ট্রেন্ডিং হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করুন:

রেটুইট এবং মেনশন ব্যবহার করুন: আপনি অন্যদের সাথে সম্পর্ক গঠন ও সংযোগ করতে তাদের টুইটগুলি রেটুইট এবং কোট দেওয়ার মাধ্যমে অন্যদের টুইটগুলির সাথে সম্পর্ক গঠন করতে পারেন। এটি নতুন নতুন সংযোগ সৃষ্টি করতে সহায়তা করবে এবং আপনার টুইটগুলি আরও জনপ্রিয় এবং এক্সাইটিং করবে।

রেটুইট এবং মেনশন ব্যবহার করুন:

আপনার পাবলিসিটি বাড়ানোর জন্য টুইট নির্দিষ্ট সময়ে পোস্ট করুন: টুইটারে সময়ে পোস্ট করার কম্পিটেশন সহজ এবং টুইটগুলির ভিজিবিলিটি বাড়ানোর জন্য নির্দিষ্ট সময়ে টুইট করুন। 

আপনার পাবলিসিটি বাড়ানোর জন্য টুইট নির্দিষ্ট সময়ে পোস্ট করুন

৪। Pinterest

পিন্টারেস্ট একটি ভিজুয়াল ডিসকভারি এবং সংরক্ষণাগার প্লাটফর্ম যা আপনাকে ছবি, ভিডিও, লিংক এবং অন্যান্য মাধ্যমে আপনার পছন্দের আইডিয়া সংগ্রহ করতে সাহায্য করে।  আপনি পিন্টারেস্ট ব্যবহার করে আপনার পণ্যগুলি বিভিন্ন বোর্ডে এভাবে পাবলিশ করতে পারেন।

 Pinterest

পিন্টারেস্ট আপনাকে রিসেন্ট আর ট্রেন্ডিং বিষয় গুলো নিয়ে আইডিয়া দিতে পারবে এবং ক্রেতাদের আপনার পন্যের উপর আকর্ষণ আরো বাড়াতে সাহায্য করতে পারবে। পিন্টারেস্ট ব্যবহার করে আপনি আপনার কাস্টমারদের এক্সপেরিয়েন্স সম্পর্কে জানতে পারেন এবং তাদের কাছ থেকে ফিডব্যাক পাওয়ার মাধ্যমে আপনার পন্য বা সার্ভিসের মান উন্নত করতে পারেন।

সামগ্রিকভাবে বলতে গেলে, পিন্টারেস্ট আপনার প্রিন্ট অন ডিমান্ড মার্কেটিং ক্যাম্পেইনের একটি গুরুত্বপূর্ণ টুল হতে পারে, যা আপনাকে আপনার কাস্টমারদের আকর্ষণ করতে এবং আপনার পন্য বা সার্ভিস ডেলিভারিতে সাহায্য করে। সুতরাং, এই প্ল্যাটফর্মটি আপনার মার্কেটিং স্ট্রাটেজিকে ডেভেলপ করতে পারে এবং আপনাকে আরও এডভান্স পাবলিসিটির সুযোগ করে দেয়। 

৫। YouTube

YouTube একটি ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম যা হিউজ পাবলিক গ্রুপের  সাথে আপনাকে পরিচিত করে দিতে পারে। এাখনে আপনি POD Marketing এর জন্য প্রমোশনাল ভিডিও, টিউটোরিয়াল, ব্র্যান্ড স্টোরি ইত্যাদি ভিডিও প্রকাশ করতে পারেন এবং চ্যানেল পেজে বিজ্ঞাপন করে এগুলো প্রচার করতে পারেন।

এখানে আপনি আপনার পণ্য গুলোর হাই কোয়ালিটি ভিডিও করে আপলোড করতে পারেন। কিংবা আপনার পণ্য ব্যবহারকারীদের কে দিয়ে রিভিউ ও করাতে পারেন। সবচেয়ে মজার বিষয় হল, ইউটিউবে আছে হাজারো ইনফ্লুয়েন্সার। তাদের মাধ্যমে কিন্তু আপনি আপনার প্রোডাক্ট গুলোর পেইড কিংবা কমিশনের শর্তে প্রমোশন করিয়ে নিতে পারবেন। এছাড়াও ইউটিউবে বিজ্ঞাপন দেখিয়েও পাবলিসিটি করা পসিবল। 

৬। TikTok

 TikTok হলো বর্তমান সময়ের অন্যতম একটি জনপ্রিয় ভিডিও প্লাটফর্ম যা ক্রিয়েটিভিটি, এন্টারটেইনমেন্ট এবং ট্রেন্ডিং ভিডিওগুলির জন্য পরিচিত। আপনি আপনার প্রিন্ট অন ডিমান্ড পণ্যগুলির ছোট ভিডিও, টিউটোরিয়াল, অ্যার্টিস্টিক কনটেন্ট প্রকাশ করতে পারেন এবং হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে আরো প্রচার করতে পারেন।

Tiktok

যেহেতু টিকটকে একটি বড় এমাউন্টের অডিয়েন্স আছে আর এখানের ভিডিও গুলো প্রায়ই ট্রেন্ডিং এ থাকে, আপনি আপনার বিজনেসের প্রমোশন টিকটক দিয়েই শুরু করতে পারেন। আর হ্যাঁ, এখানেও আছে অসংখ্য ইন্ফ্লুয়েন্সার, যাদের লাখো ফলোয়ার আছে। তাদের মাধ্যমে পেইড প্রোমোশন করিয়েও আপনি বিজনেসের রিচ বাড়াতে পারবেন। আর এগুলো খুব দ্রুত অনেক অনেক অডিয়েন্সের কাছে পৌঁছে যায়, তাই অল্প সময়ে প্রচারণার জন্য টিকটক বেশ ভাল প্লাটফর্ম বলা চলে। 

৭। LinkedIn

LinkedIn ব্যবসায়িক সামাজিক নেটওয়ার্কিং প্লাটফর্ম যা বিজনেস কমিউনিটির সাথে আপনাকে যুক্ত করে দিতে পারে। আপনি আপনার প্রিন্ট অন ডিমান্ড ব্র্যান্ড এবং POD Marketing করতে LinkedIn ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়াও, আপনি নেটওয়ার্কিং, ব্যাকগ্রাউন্ড চেক এবং কর্মীদের চাকরি বিজ্ঞপ্তি দিতেও এই প্লাটফর্মটি ব্যবহার করতে পারেন।

7. Linkedin

যেহেতু লিংকডিন একটি ফরমাল প্লাটফর্ম, এখানে যেকোনো বিজনেসের একটি কোয়ালিটি ইমেজ তৈরি করা যায়। আর আপনার বিজনেসর একটি ডিসেন্ট প্রোফাইল তৈরর করতে পারলে শুধুমাত্র এখান থেকেই আপনি ক্লায়েন্ট বা কাস্টমারের বিশ্বস্ততা লাভ করতে পারবেন। তাছাড়া এখানে আপনি আপনার বিজনেস রিলেটেড আরো অনেক প্রোফাইলের সাথে কানেক্টেড থাকার সূযোগ পাবেন। এতে করে নলেজ, পার্সপেক্টিভ ও বিজনেস স্ট্র্যাটেজিতেও ইফেক্টিভ ইমপ্রুভমেন্ট আনতে পারবেন।  

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More To Explore
পারসোনাল ব্র্যান্ডিং এর জন্যে লিংকড ইন
Marketing

পারসোনাল ব্র্যান্ডিং এর জন্যে লিংকড ইন

পারসোনাল ব্র্যান্ডিং কথাটির সাথে আমরা কম বেশি সকলেই পরিচিত। ব্র্যান্ডিং হল যেকোনো ধরনের ব্যবসা বা প্রোডাক্টের নিজ নিজ সক্রিয়তাকে মানুষের সামনে তুলে ধরা। তাহলে পারসোনাল

৭টি মার্কেটিং স্কিল যা প্রত্যেকটি উদ্যোক্তার থাকা উচিত
Marketing

৭টি মার্কেটিং স্কিল যা প্রত্যেকটি উদ্যোক্তার থাকা উচিত

উদ্যোক্তা হিসেবে আপনি আপনার ব্র্যান্ড প্রচার প্রচারণার ক্ষেত্রে কিছু মার্কেটিং স্কিলের সাহায্য নিতে পারেন। এসব মার্কেটিং স্কিল আপনাকে আপনার কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে অনেকাংশে  সাহায্য করবে।