উদ্যোক্তাদের জন্যে ৭ টি ইফেক্টিভ Financial Management টিপস

উদ্যোক্তাদের জন্যে ৭ টি ইফেক্টিভ Financial Management টিপস।
Share This Post

উদ্দোক্তা হবার জার্নিতে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে Financial Management। বিজনেস শুরুর পরিকল্পনা থেকে শুরু করে, একজন সফল উদ্দোক্তার পর্যন্ত সকলের জন্য Financial Management একটা বেসিক নিড। আপনি যখন একদম বিগিনার লেভেলে বিজনেস প্লানিং করবেন তখনই আপনার বাজেট নির্ধারণ করে নিতে হবে। কারণ এর উপরেই ডিপেন্ড করবে আপনার বিজনেস কতখানি গ্রো করবে।

আর ওভারঅল বিজনেস জার্নিতে টাকাপয়সার প্রোপার ম্যানেজমেন্ট রাখতেই হবে। তাই এই আর্টিকেলে আমরা সবচেয়ে উপকারী সাতটি ইফেক্টিভ Financial Management টিপস নিয়ে আলোচনা করব। এই টিপসগুলি উদ্যোক্তাদের একটিভিটিকে উন্নত করার জন্যে বিশেষ ভাবে কাজে দিবে।  

উদ্যোক্তাদের জন্যে ৭ টি ইফেক্টিভ Financial Management টিপস

এখানে একদম মাস্ট হ্যাভ কিছু Financial Management টিপস সম্পর্কে ডিসকাস করবো যা সব ধরনের উদ্দোক্তাদের জন্য প্রযোজ্য। 

১।প্রোপার Financial Management এর জন্যে বাজেট তৈরি করুন 

যেকোনো উদ্যোক্তার জন্যে Financial Management খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ কাজ শুরু করার আগে কাজের ফিল্ড কত বড় হবে তা নির্ধারণ করে আগাতে হবে। নতুবা শুরুতেই ব্যবসার ক্যাপিটাল, ফান্ডিং ও খরচ গুলো হিসাবের বাইরে চলে যাবে। মোট কথা ব্যাবসার ম্যানেজমেন্ট এ একটা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হবে।

আর এজন্য সবার প্রথমে যে কাজটি করতে হবে তা হল, একটি বাজেট নির্ধারণ করা। একটি বাজেট তৈরি করে আপনি শুরু থেকেই আপনার বিজনেস রিলেটেড সব ধরনের আর্থিক সম্পদ নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। আপনাকে আপনার উদ্দেশ্য, আয়, ব্যয়, উদ্দেশ্য অনুযায়ী পরিকল্পনা করতে সাহায্য করে। 

বাজেট পরিচালনার মাধ্যমে একজন উদ্যোক্তা নিয়মিত আর্থিক স্টেটমেন্ট পর্যালোচনা করতে পারেন এবং তার ব্যবসার যাবতীয় খরচের উপর নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারেন। অনেক উদ্দোক্তা আছেন যারা কোন খাতে বেশি ব্যয় করবেন, কোন খাতে খরচ কমাবেন এগুলো বুঝে উঠতে পারেন না। তাদের জন্য ব্যবসা শুরুর আগেই একটা কমপ্লিট বাজেট লিমিট সেট করে নেয়ার পরামর্শ রইলো।

২। সতর্কতার সাথে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে Financial Management করতে হবে

আধুনিক ও কার্যকর উপায়ে যদি আপনি Financial Management করতে চান তাহলে ক্রেডিট কার্ড একটি সুবিধাজনক মাধ্যম। কারণ এখানে অটোমেটিক্যালি সকল লেনদেনের হিসার রাখতে পারবেন। সকল ট্রানজেকশন এর স্টেটমেন্ট ক্রেডিট কার্ডের মধ্যেই জমা থাকবে। কারণ ম্যানুয়াল ডকুমেন্টস হিউম্যান ইরর এর প্রচুর সম্ভাবণা থাকে। অসতর্কতা বসত ডকুমেন্টস নষ্ট হয়ে গেলে ব্যবসা বিরাট ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে। 

এজন্য ক্রেডিট কার্ড কিন্তু খুবই ইফেক্টিভ আর নির্ভেজাল একটি অপশন। তাই আপনার বিজনেসে শুরুর দিকেই আপনার বিজনেসের উদ্দেশ্য করে একটি একাউন্ট খুলে নিন। এবং সকল ধরনের লেনদেন, ব্যাবসায়িক ট্রানজেকশন, এমপ্লয়িদের বেতন এমন সব ধরনের খরচের জন্য কার্ডের ব্যবহার করুন। এতে করে কোনো রকম ঝামেলা ছাড়াই আপনি আপনার বিজনেসের সব অর্থনৈতিক লেনদেনের স্টেটমেন্ট রাখতে পারবেন। 

যদিও ক্রেডিট কার্ড একটি সুবিধাজনক উপায় ব্যবসায়ীদের জন্যে ট্রানজেকশনের জন্য। তবে, এটি সঠিকভাবে ব্যবহার না করলে এটির জন্য আপনার আর্থিক সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে নিজেকে সতর্ক রাখতে হবে। এর একটি উপায় হলো ক্রেডিট লিমিট এর মধ্যে থাকার চেষ্টা করা। যে এই লিমিট বা এই বাজেটের বাইরে থেকে খরচ করা যাবে না।  এছাড়াও, ক্রেডিট কার্ড বিল নিয়মিত পর্যালোচনা করা উচিত এবং সময়ে বিল পরিশোধ করা উচিত। তাতে অনাকাঙ্ক্ষিত সমস্যা এড়ানো যাবে। 

৩। ক্যাপিটাল এনালাইসিস করুন 

মূলধন বিশ্লেষণ করা উদ্যোক্তাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি তাদের ব্যবসার আর্থিক স্বাস্থ্য, স্থায়িত্ব এবং বৃদ্ধির সম্ভাবনা সম্পর্কে সচেতন সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম করে। ঋণ এবং ইক্যুইটি উভয় উপাদান সহ তাদের মূলধন কাঠামো বোঝার মাধ্যমে, উদ্যোক্তারা তাদের কোম্পানির সামগ্রিক আর্থিক অবস্থানের মূল্যায়ন করতে পারে। এবং একটিভিটি গুলোর জন্য অর্থায়ন, নতুন সুযোগগুলিতে বিনিয়োগ এবং অপ্রত্যাশিত চ্যালেঞ্জগুলির মোকাবিলা করার ক্ষমতা নির্ধারণ করতে পারে। 

ক্যাপিটাল এনালাইসিস, নগদ প্রবাহ ব্যবস্থাপনা, লাভজনকতা এবং বিনিয়োগের উপর রিটার্নের ইমসাইট প্রদান করে। উদ্যোক্তাদের কার্যকরভাবে সম্পদ বরাদ্দ করতে, বিনিয়োগকারীদের বা ঋণদাতাদের আকৃষ্ট করতে এবং ভবিষ্যতের মূলধনের প্রয়োজনের জন্য পরিকল্পনা করতে সহায়তা করে। মোট কথা আপনাকে একটি কমপ্লিট বিজনেস প্লানিং এ সহায়তা করে।

নিয়মিত পুঁজি বিশ্লেষণ করে, উদ্যোক্তারা তাদেরকে নতুন নতুন কৌশলের এডাপটেশন এর প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে জানতে পারে। এবং সেগুলোর সাথে নিজেদের কে মানিয়ে নিতে পারে। তাদের আর্থিক কর্মক্ষমতা অপ্টিমাইজ করতে পারে এবং তাদের ব্যবসার দীর্ঘমেয়াদী কার্যকারিতা এবং সাফল্য নিশ্চিত করতে পারে।

৪।Financial Management এর ক্ষেত্রে অর্থ সঞ্চয় খুবই গুরুত্বপুর্ন

একজন উদ্যোক্তা হিসেবে, ব্যক্তিগত এবং ব্যবসায়িক সাফল্যের জন্য অর্থ সঞ্চয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এটির জন্য শৃঙ্খলা, কৌশলগত চিন্তাভাবনা এবং দীর্ঘমেয়াদী লক্ষ্যগুলির উপর ফোকাস প্রয়োজন। অর্থ সঞ্চয় করার অন্যতম প্রধান উপায় হল খরচগুলি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা এবং খরচ কমানো যেতে পারে এমন ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা। এর মধ্যে কানেক্টেড সকলের সাথে আরও ভালো চুক্তি করা, প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম বা পরিষেবার জন্য সাশ্রয়ী বিকল্প খুঁজে বের করা। বা অপচয় কমানোর জন্য দক্ষ অপারেশনাল প্রক্রিয়া বাস্তবায়ন করার মত কাজ করা যেতে পারে। 

উপরন্তু, ব্যক্তিগত খরচের অভ্যাসের মধ্যে মিতব্যয়িতা প্রাকটিস করলে আপনার ওভারঅল আর্থিক সুস্থতার উপর উল্লেখযোগ্য প্রভাব ফেলতে পারে। অপ্রয়োজনীয় খরচ কমানো, ওয়াইজলি বাজেট নির্ধারণ করা এবং দীর্ঘমেয়াদী রিটার্ন প্রদান করে এমন বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেওয়া সবই একজন উদ্যোক্তা হিসেবে অর্থ সাশ্রয়ে অবদান রাখতে পারে। 

এছাড়া, ট্যাক্স কাটা এবং ভ্যাট সম্পর্কিত জটিলতা ক্লিয়ার করা, স্বাধীন ঠিকাদার নিয়োগ করা বা সরকারী প্রোগ্রামগুলির সুবিধা নেওয়া, আর্থিক সংস্থানগুলি অপ্টিমাইজ করতে সহায়তা করতে পারে। শেষ পর্যন্ত, ব্যয় এবং সঞ্চয় করার জন্য একটি একটিভ এবং ক্রিয়েটিভ পদ্ধতি অবলম্বন করে, উদ্যোক্তারা একটি শক্তিশালী আর্থিক ভিত্তি তৈরি করতে পারেন। এবং নিজেদের এবং তাদের ব্যবসার জন্য একটি উজ্জ্বল ভবিষ্যত সুরক্ষিত করতে পারেন। 

৫। ভ্যাট মেইনটেইন করে Financial Management করুন

সঠিক ভ্যাট রক্ষণাবেক্ষণ আপনাকে নিশ্চিত করতে সাহায্য করে যে আপনার ব্যবসা ট্যাক্স আইনের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ আছে। যার ফলে কোনো সম্ভাব্য আইনি সমস্যা এড়ানো যায়। এটি আপনাকে ট্যাক্স কর্তৃপক্ষের কাছে বকেয়া ভ্যাট সঠিকভাবে গণনা করতে এবং প্রতিবেদন করতে দেয়, অতিরিক্ত অর্থপ্রদান বা কম অর্থপ্রদানের ঝুঁকি হ্রাস করে। উপরন্তু, ভ্যাট রেকর্ড বজায় রাখা আপনার আর্থিক লেনদেনে স্বচ্ছতা প্রদান করে, যা আপনার ব্যবসাকে কার্যকরভাবে পরিচালনা করতে এবং ওয়াইজ সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য একদম অপরিহার্য।

কার্যকরভাবে ভ্যাট বজায় রাখতে, আপনাকে কয়েকটি মূল পদক্ষেপ অনুসরণ করতে হবে। প্রথমত, আপনার ব্যবসা যদি ভ্যাট নিবন্ধনের থ্রেশহোল্ডে পৌঁছায় তাহলে সংশ্লিষ্ট কর কর্তৃপক্ষের সাথে ভ্যাটের জন্য নিবন্ধন করুন৷ আপনার সেলিং এবং কেনাকাটার ট্র্যাক রাখুন, নিশ্চিত করুন যে আপনি গ্রাহকদের কাছ থেকে চার্জ করা ভ্যাট এবং ব্যবসায়িক খরচের উপর প্রদত্ত VAT সঠিকভাবে রেকর্ড করেন। 

নিয়মিতভাবে আপনার ভ্যাট রেকর্ডগুলিকে আপনার আর্থিক বিবৃতিগুলির সাথে সামঞ্জস্য করুন যাতে কোনও অসঙ্গতি হলে তা সনাক্ত করা যায়। অবশেষে, নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে আপনার ভ্যাট রিটার্ন এবং কর কর্তৃপক্ষের কাছে পেমেন্ট জমা দিন।

৬। Financial Management এ ডিজিটাল ডিভাইস এর ব্যাবহার

ডিজিটাল ডিভাইসগুলি উদ্যোক্তাদের স্কিল টুলস এবং অপশনের একসেস সরবরাহ করে তাদের Financial Management এ একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। স্মার্টফোন, ট্যাবলেট এবং কম্পিউটারের সাহায্যে, উদ্যোক্তারা বিস্তৃত আর্থিক অ্যাপ্লিকেশন এবং সফ্টওয়্যার অ্যাক্সেস করতে পারে যা বাজেট, ব্যয় ট্র্যাকিং, চালান এবং আর্থিক বিশ্লেষণের মতো কাজগুলিকে স্ট্রিমলাইন করে। 

এই ডিভাইসগুলি উদ্যোক্তাদেরকে সংগঠিত থাকতে এবং আর্থিক ডেটাতে রিয়েল-টাইম অ্যাক্সেস প্রদান করে, নগদ প্রবাহ নিরীক্ষণ করতে, বিক্রয় ট্র্যাক করতে এবং লাভজনকতা বিশ্লেষণ করতে সাহায্য করে স্কিলড সিদ্ধান্ত নিতে দেয়। উপরন্তু, ডিজিটাল ডিভাইসগুলি অনলাইন ব্যাঙ্কিং প্ল্যাটফর্ম এবং পেমেন্ট গেটওয়েতে নিরাপদ অ্যাক্সেস প্রদান করে, নির্বিঘ্ন লেনদেন সহজতর করে এবং ব্যবসায়িক অর্থের স্মুথ মেইনটেইন্যান্স নিশ্চিত করে। 

সামগ্রিকভাবে, এই ডিজিটাল সরঞ্জামগুলি উদ্যোক্তাদের তাদের আর্থিক ক্রিয়াকলাপগুলিকে কার্যকরভাবে পরিচালনা করতে, সময় এবং শ্রম বাঁচাতে সাহায্য করে।

৭। পরিবহন খরচ মাসে পর্যালোচনা করুন 

উদ্যোক্তার জন্যে পরিবহন খরচ মাসে পর্যালোচনা করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পরিবহন খরচ অনেকসময় একটি বেশি খরচযোগ্য অংশ হতে পারে তাই এটি উদ্যোক্তার আর্থিক পরিচালনার জন্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এজন্য একজন উদ্যোক্তা তার পরিবহন ব্যয় রেকর্ড রাখতে পারেন এবং খরচের সাথে মিলিয়ে নিজের বাজেটে এটি এডড করতে পারেন।

পরিবহন ব্যয়ের পরিবর্তে উদ্যোক্তা বিভিন্ন পরিবহন বিকল্প অপশন বিবেচনা করতে পারেন। যদি সম্ভব হয়, তারা স্বয়ংক্রিয় পরিবহন ব্যবহার করতে পারেন যেমন সাইকেল, গাড়ি বা পায়ে হাটা। এছাড়াও, কর্মীদের জন্যে গুরুত্বপূর্ণ পরিবহন ব্যয় অপশন অনুসন্ধান করা যেতে পারে যেমন পাবলিক ট্রান্সপোর্ট বা অংশগ্রহণের জন্য ওয়াণ শেয়ারিং সার্ভিস।

পরিবহন ব্যয় মাসিক বিল পর্যালোচনা করা উচিত এবং এটি কমাতে উদ্যোক্তাকে অন্যান্য পরিবহন অপশন ইউজ করতে পারেন। এছাড়াও, উদ্যোক্তারা সাশ্রয়ী পরিবহন ব্যবহারের মাধ্যমে পরিবহন ব্যয় কমাতে পারেন এবং বিচার করতে পারেন যে কি কি সহজ বিকল্প আছে যা তাদের প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজনীয়তা পূরণ করতে পারে।

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More To Explore
কাস্টমার সার্ভিস স্কিলস ইম্প্রোভ করার ৭টি টিপস
Marketing

কাস্টমার সার্ভিস স্কিলস ইম্প্রোভ করার ৭টি টিপস

কাস্টমার সার্ভিস হল বিজনেস সুদুরপ্রসারি করার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ স্টেপ। কাস্টমারই আপনার বিজনেস এর লক্ষ্য, আপনার প্রোফিট এর উৎস। তাই কাস্টমার সন্তুষ্ট করতে, একটা ওয়েল স্ট্র্যাকচারড

মার্কেটিং এর জন্য টুইটার অ্যালগরিদম কিভাবে ইউজ করবেন
Marketing

মার্কেটিং এর জন্য টুইটার অ্যালগরিদম কিভাবে ইউজ করবেন

আপনি কি টুইটারের মাধ্যমে এনগেজমেন্ট বাড়াতে এবং লিড তৈরি করতে চাইছেন? অথবা সম্ভবত আপনি আপনার ব্র্যান্ড রেপুটেশন বাড়াতে টুইটার অ্যালগরিদম নেভিগেট করাকে বেশ চ্যালেঞ্জিং মনে