অনলাইন ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ডআপ করার টিপস

অনলাইন ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ডআপ করার টিপস
Share This Post

আপনি কি সবচেয়ে সাশ্রয়ী ও সাস্টেইনেবল ওয়েতে আপনার ব্যবসার সেল বা আরো বেশি কাজের বাইয়ার বাড়াতে চান? তাহলে প্রথমেই আপনার নজর দিতে হবে আপনার ক্লায়েন্টের দিকে। ইন্টারনেটের যুগে, ক্লায়েন্টের সাথে অনলাইনে কানেক্টেড থাকা কোনো কষ্টসাধ্য ব্যাপার না। অনলাইন ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করতে পারলেই দেখবেন, তারা আপনার কোম্পানি থেকে দীর্ঘসময় ধরে সার্ভিস নিচ্ছে। 

আবার, বর্তমান প্রজন্মের ক্লায়েন্টরা কোনো সার্ভিস বা প্রোডাক্ট কেনার আগে এর রিভিউ বা রেফারেন্স চেক করতে ভুলে না। তাই এই যে, আপনি যেসব অনলাইন ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করে আছেন, তারাই আপনার বড় অ্যাসেট হয়ে উঠবে। নিশ্চয়ই ভাবছেন এটা আবার কীভাবে সম্ভব। ভেবে দেখুন, আপনি কোন দোকান থেকে বেশি কেনাকাটা করেন, অবশ্যই যে দোকানদার আপনার পরিচিত পাশাপাশি আপনার সাথে ভালো সম্পর্কও আছে। ব্যাপারটা আসলে অনেকটা এরকমই। এছাড়া এই ক্লায়েন্টরাই আপনাকে আরো ক্লায়েন্ট রিচ করতে সাহায্য করবে। চলুন এবার জেনে নেই অনলাইন ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করার টিপস ও ট্রিকস-

কেন অনলাইন ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করা প্রয়োজন? 

অনলাইনভিত্তিক এই যুগে, ক্লায়েন্টদের অপশনের কমতি নেই। শুধু একবার সার্চেই হাজার হাজার ফ্রিলান্সার বা কোম্পানির পেইজ সামনে নিয়ে আসে। তাহলে এই প্রতিযোগিতায় আপনি কীভাবে তাদের পছন্দের শীর্ষে থাকবেন?

হ্যা অবশ্যই আপনার ইউনিক ও দুর্দান্ত সার্ভিস। 

আপনি যদি অনলাইন ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করতে পারেন, তাহলে তারা বারবার আপনার থেকে সার্ভিস নিবে। অন্যথায়, আপনি আপনার ৮৯% ক্লায়েন্ট হারিয়ে ফেলতে পারেন। আপনি ভাবতে পারেন, তাতে কি? নতুন ক্লায়েন্ট তো রয়েছে। কিন্তু এই ফ্রিলান্সিং প্ল্যাটফর্মে নতুন ক্লায়েন্ট খুঁজতে আগের ক্লায়েন্ট ধরে রাখার চেয়ে ৫ গুন খরচ করতে হয়। তাই ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ রাখার মাধ্যমে আপনি শুধু সেল না রেফারেন্সও পাবেন যা আপনার নেটওয়ার্ক বাড়াতে সাহায্য করবে।

কীভাবে অনলাইন ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করবেন-

স্ট্রং রিলেশনশিপ বলতে এখানে কোনো পার্সোনাল রিলেশনশিপ বুঝায় নি। আপনার ক্লায়েন্টের সাথে কন্টিনিয়াস যোগাযোগ রাখা যাতে তারা পরবর্তীতেও আপনার কাছ থেকে পারচেজ করেন। এতে করে বিজনেসের গ্রোথ কয়েকগুণ বেড়ে যাবে। কি চিন্তায় পড়ে গেলেন কীভাবে অনলাইন ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করবেন? চলুন ধাপে ধাপে টিপসগুলো জেনে নেই-

১. সময়সমতো যোগাযোগ করা :

টাইমলি ইফেক্টিভ যোগাযোগ করা যেকোনো রিলেশন স্ট্রং করার পূর্বশর্ত। ক্লায়েন্ট সব সময় তার কাজ করিয়ে নিতে ব্যস্ত, কখন কি পরিবর্তন চাচ্ছেন বা তার নতুন রিকোয়ারমেন্ট আছে কিনা তা আপ টু ডেট খবর রাখেন। সবসময় এভেইল্যাবল থাকা মানে আপনার কাছে ক্লায়েন্টের স্যাটিসফেকশন এবং প্রজেক্টটা কতটা গুরুত্বপূর্ণ। মোটকথা, আপনার ক্লায়েন্টকে ফিল করানো আপনি তার আইডিয়া বা রিকোয়ারমেন্ট গুলো গুরুত্ব সহকারে নোট করছেন। এছাড়া আপনি ক্লায়েন্টের সাথে সৎ ও সরাসরি যোগাযোগ রক্ষার মাধ্যমে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করতে পারেন।

সময়সমতো যোগাযোগ করা

২.সবসময় পজিটিভ এবং আত্মবিশ্বাসী থাকবেন :

একজন ফ্রিল্যান্সার হিসাবে, আপনার অনেক কাজের প্রেশার থাকবে। আপনি যতটাই স্ট্রেস থাকুন না কেন, আপনার ক্লায়েন্টকে তা বুঝতে দেওয়া যাবে না। আপনাকে তার সাথে হাসিমুখে প্রফেশনাল ব্যবহার করতে হবে। আপনাকে ক্লায়েন্টদের বুঝাতে হবে আপনি আপনার কাজ নিয়ে যথেষ্ট সিরিয়াস। মানুষ সবসময় পজিটিভ মাইন্ডসেটের মানুষের সাথে কাজ করতে ভালোবাসে।

সবসময় পজিটিভ এবং আত্মবিশ্বাসী থাকবেন

৩. ক্লায়েন্টের বিশ্বাস অর্জন করুন :

বিশ্বাস আপনার ক্লায়েন্টের যেকোনো সিদ্ধান্ত পরিবর্তনে কি ফ্যাক্টর হিসেবে কাজ করবে। হতে পারে তা আপনার সাথে কাজ কনটিনিউ করার বা পরিবর্তনের। সততা ও ইউনিক সার্ভিসের মাধ্যমে আপনি সহজেই আপনার ক্লায়েন্টের বিশ্বাস অর্জন করতে পারবেন। নিজের কমিটমেন্টে অনড় থাকুন। কাজের আপডেট জানিয়ে ক্লায়েন্টকে মেইল, কল বা মেসেজ করুন। ক্লায়েন্টকে প্রতিনিয়ত বুঝাবেন যে আপনি অনেক বিশ্বস্ত ও নির্ভরযোগ্য। 

ক্লায়েন্টের বিশ্বাস অর্জন করুন

৪. আপনার মতামত শেয়ার করুন :

ক্লায়েন্টের সাথে দৃঢ় এবং দীর্ঘস্থায়ী সম্পর্ক তৈরি করার জন্য, আপনাকে অবশ্যই ক্লায়েন্টের কাছে এক্সপার্ট হিসেবে পরিচিতি পেতে হবে। যেকোনো সিচুয়েশনে যাতে তারা এক্সপার্ট হিসাবে আপনার উপর আস্থা রাখতে পারেন। সেজন্যই প্রফেশনাল প্রজেক্টে মত প্রকাশের পূর্ণ স্বাধীনতা থাকতে হবে। আপনি প্রজেক্টের প্রফিট নিয়ে কি ভাবছেন তা ক্লায়েন্টকে জানতে হবে। একজন ক্লায়েন্টকে তাদের প্রজেক্ট সম্পর্কে আপনার সত্যিকারের মতামত প্রকাশ করুন।

আপনার মতামত শেয়ার করুন

তবে, অনেকক্ষেত্রে আপনার সৎ মতামত প্রকাশ আপনার ক্লায়েন্ট রেকর্ড নষ্ট করবে। আবার, ক্লায়েন্ট আপনার এই আত্মবিশ্বাসের সাথে সৎ মতামত প্রকাশের জন্য প্রশংসাও করতে পারেন।

৫. ক্লায়েন্টের এক্সপেকটেশন ক্রস করুন :

ক্লায়েন্টর সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করার অন্যতম সহজ উপায় হচ্ছে নিজেকে এমনভাবে রিপ্রেজেন্ট করা যে আপনি এক্সসেপশনাল সার্ভিস দিতে সক্ষম। নিজের রেকর্ড নিজেই ভাঙুন। নিজেকে এমনভাবে তৈরি করুন যার সাথে আপনি নিজেও ক্লায়েন্ট হয়ে কাজ করতে চান।

ক্লায়েন্টের এক্সপেকটেশন ক্রস করুন

৬. ক্লায়েন্টের ছোট-বড় সব লক্ষ্য বুঝুন :

স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করতে গেলে যেমন ওয়ান টু ওয়ান কানেকশন প্রয়োজন। ঠিক তেমনি এখানেও আপনাকে ক্লায়েন্টকে পুরো রিড করতে হবে। ক্লায়েন্ট কি চায় তা বুঝতে পারলে আপনার অর্ধেক কাজ শেষ। ক্লায়েন্টের ছোট-বড় সব লক্ষ্য বোঝার মাধ্যমে আপনারও  ক্লায়েন্টের প্রতি বিশ্বাস ও সম্মানবোধ বজায় থাকবে।

ক্লায়েন্টের ছোট-বড় সব লক্ষ্য বুঝুন

৭. ক্লায়েন্টের সমস্যার সমাধান করুন :

ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেসে টিকে থাকার চাবিকাঠি হচ্ছে আপনার ক্লায়েন্টদের সমস্যা সমাধান করা। আপনার ক্লায়েন্টের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ কি শুনুন এবং তার উপযুক্ত সমাধান বের করুন। কীভাবে আপনি তাদের সময় বাঁচাতে পারবেন এবং সমাধানগুলির মাধ্যমে আরও অর্থ উপার্জন করতে পারেন সে সম্পর্কে চিন্তা করুন।

ক্লায়েন্টের সমস্যার সমাধান করুন

ধরুন আপনার ক্লায়েন্ট এর একজন কন্টেন্ট রাইটার দরকার, আপনি আপনার কানেকশনে কেউ থাকলে তাকে হায়ার করার সাজেশন দিতে পারেন। ক্লায়েন্টের সমস্যা সমাধানের জন্য সবচেয়ে সহজ সমাধান খুঁজে বের করুন যা আপনি ব্যক্তিজীবনে সহজেই বাস্তবায়ন করতে পারতেন।

৮. প্রজেক্ট ডেলিভারি টুল ব্যবহার করুন :

প্রজেক্ট ডেলিভারি টুলসের ব্যবহার আপনাকে ক্লায়েন্টের কাছে পজিটিভভাবে তুলে ধরবে। এমন টুলস ব্যবহার করুন যাতে আপনি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত প্রফেশনালিজম বজায় রাখতে পারেন। যেমন প্রজেক্ট প্রোপোজাল, কন্ট্রাক্ট, ক্লায়েন্ট রিপোর্ট ইত্যাদির ব্যবহার আপনার কাজকে আরো অর্গানাইজড ও প্রফেশনাল হিসেবে প্রেজেন্ট করবে। 

প্রজেক্ট ডেলিভারি টুল ব্যবহার করুন

৯. ক্লায়েন্টর কাছে ফিডব্যাক চান :

ক্লায়েন্টের কাছে ফিডব্যাক চাওয়ার মাধ্যমে আপনি আপনার কাজের ইমপ্রুভমেন্ট করার সুযোগ পাচ্ছেন। পাশাপাশি এটি আপনার ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করতে সাহায্য করবে। ফিডব্যাক চাওয়ার মাধ্যমে সহজেই বুঝা যায় ক্লায়েন্টের মতামত আপনার কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ। 

ক্লায়েন্টর কাছে ফিডব্যাক চান

শেষ কথা:

সলিড বিজনেস মডেলের পাশাপাশি ক্লায়েন্টের সাথে স্ট্রং রিলেশনশিপ বিল্ড আপ করার গুরুত্ব অনেক।

ক্লায়েন্ট যেমন আপনার বিজনেস বা স্টার্টআপের সেল বৃদ্ধির জন্য দায়ী, তেমনি নেগেটিভ রিভিউ দিয়ে বিজনেসের ক্লায়েন্ট হারাতেও ভূমিকা রাখে।

তাই প্রতিযোগিতাপূর্ণ এই মার্কেটপ্লেসে টিকে থাকতে হলে সার্ভিস দিয়ে সন্তুষ্ট রাখার পাশাপাশি ইফেক্টিভ কমিউনিকেশন করতে হবে।

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More To Explore
কনটেন্ট মার্কেটিং প্ল্যান বিল্ড করার ৭টি স্টেপ
Marketing

কনটেন্ট মার্কেটিং প্ল্যান বিল্ড করার ৭টি স্টেপ

ডিজিটাল যুগে কনটেন্ট মার্কেটিং, অডিয়েন্সের সাথে যুক্ত হতে, ব্র্যান্ড রেপুটেশন তৈরি করতে এবং কনভার্সন ড্রাইভ করতে চাওয়া ব্যবসা গুলোর জন্য একটা ফাউন্ডেশন হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে।

ফেইসবুক অ্যাডভার্টাইজিংয়ের মাধ্যমে গ্লোবালি প্রোডাক্ট সেল করুন
Marketing

ফেইসবুক অ্যাডভার্টাইজিংয়ের মাধ্যমে গ্লোবালি প্রোডাক্ট সেল করুন

আপনার লোকাল বিজনেসটিকে আরো অ্যাডভান্স করতে, গ্লোবালি প্রোডাক্ট সেল করা একটা গেম-চেঞ্জার হতে পারে এবং ফেসবুক অ্যাডভার্টাইজিং কিন্তু এই পরিবর্তনের একটা গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার। বিশ্বব্যাপী ২.৮ বিলিয়ন