আপকামিং ফাদার্স-ডে সেল টার্গেট অ্যাচিভ করার-৭টি টিপস

আপকামিং ফাদার্স-ডে সেল টার্গেট অ্যাচিভ করার-৭টি টিপস
Share This Post

বাবা-নিজের শখ, চাহিদা এবং সুখ বিসর্জন দিয়ে আমাদের জীবনের প্রতিটা মুহুর্ত সুন্দর করার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করা কারিগর। বাবারা হয়ত বাইরের থেকে কঠিন। কিন্তু এই কঠিন মানুষ গুলোই তাদের সমগ্র জীবন আমাদের পেছনে উৎসর্গ করেন। বয়স কিংবা সময়ের পরিক্রমায় বাবাদের কখনই বলা হয় না তাদের অবস্থান কতটা গুরুত্বপূর্ণ, তাদের কে আমরা কতটা ভালবাসি। 

আপকামিং ফাদার্স-ডে সেল টার্গেট  অ্যাচিভ করার-৭টি টিপস

কিন্তু,বাবা দিবস এমনই একটি দিন যেদিন মানুষ চাইবে তাদের বাবাকে একটু হলেও স্পেশাল ফিল করাতে। উপহার,আয়োজন কিংবা সেলিব্রেশনের মাধ্যমে বাবা দিবসকে উদযাপন করতে। তাই আসছে ১৬ ই জুন বাবা দিবস কে ঘিরে শুরু হবে ফাদার্স-ডে সেল এর প্রিপারেশন। একজন সেলার কিংবা উদ্দোক্তা হিসবে এই দিনটিকে টার্গেট করেও ফাদার্স-ডে সেল টার্গেট অ্যাচিভ করতে আপনার প্রয়োজনীয় সকল ইনফরমেশন নিয়েই আজকের আলোচনা। 

ফাদার্স-ডে সেল টার্গেট অ্যাচিভ করার ৭টি টিপস :

১. বাবা কেন্দ্রিক ক্যাম্পেইন তৈরি করুন:

বিশেষভাবে বাবাদের জন্য দিনটি উদযাপনের করতে বাবা দিবসের থিমে মার্কেটিং ক্যাম্পেইন ডিজাইন করুন। এমন পণ্য বা সার্ভিস গুলো হাইলাইট করুন যেগুলো বাবাদের জন্য বিশেষ একটা গিফট আইটেম।যেমন টুলস, গ্যাজেট,খেলার গিয়ার বা খাবার বা বিনোদনমূলক একটিভিটি, পোশাক ইত্যাদি।  

বাবা কেন্দ্রিক ক্যাম্পেইন তৈরি করুন

ফাদার্স-ডে সেল টার্গেট এচিভ করার জন্য প্রোডাক্ট ও সার্ভিস এড করার সাথে সাথে একটা কমপ্লিট প্লানিং করুন৷ যেমন-কি কি প্রোডাক্ট হাইলাইট করবেন,কোন সময়ে প্রচার করবেন, কি কি ফাদার্স-ডে রিলেটেড কনটেন্ট পাবলিশ করবেন, অফার ও ডিসকাউন্ট এর ব্যবস্থা করবেন ইত্যাদি। 

২. গিফট রিকমেন্ডেশন গুলো পার্সোনালাইজড  করুন:

বাবা দিবস উপলক্ষে আপনার অডিয়েন্সকে বিভিন্ন ধরনের গিফট আইডিয়া সাজেস্ট করুন। 

রিকমেন্ডেশন গুলো ব্যক্তিগতকৃত করতে গ্রাহকের ডেটা ব্যবহার করুন৷ অতীতের কেনাকাটা বা ব্রাউজিং ইতিহাসের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন প্রপোজাল ও অফার করতে পারেন। পার্সোনালাইজড রিকমেন্ডেশন গুলো আপনার অডিয়েন্সকে বেশি বেশি এনগেজড করতে সক্ষম। অর্থাৎ তারা ফিল করে, আপনার ব্রান্ড তাদের পছন্দ অপছন্দ, চাহিদা বুঝতে পারছে এবং অনুযায়ী প্রোডাক্ট ও সার্ভিস প্রোভাইড করছে। 

গিফট রিকমেন্ডেশন গুলো পার্সোনালাইজড  করুন

৩. অফার স্পেশাল ডিল:

আপনার ফাদার্স-ডে সেল কে ড্রাইভ করার জন্য ডিসকাউন্ট, বান্ডেল বা সীমিত সময়ের অফার প্রভাইড করুন। গ্রাহকদের আরো বেশি প্রলুব্ধ করতে “একটি কিনলে আরেকটি ফ্রী” বা একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ব্যয় করলে, সাথে একটি উপহার দিন । এমন সব প্রচারের অফার দিতে পারেন। এতে করে কাস্টমার আপনার ব্রান্ডের সাথে আরো বেশি কানেক্টেড হতে পারবে। দেখা যায় এমন সব অফার ও কম্বিনেশন ডিল স্বাভাবিকের তুলনায় ২-৩ গুন সেলস বাড়িয়ে দেয়। তবে নিজের প্রোফিট এর কথা বিবেচনা করে অফার তুলতে হবে। 

অফার স্পেশাল ডিল

৪. গিফট গাইড তৈরি করুন:

গ্রাহকদের কে একটা নিখুঁত ফাদার্স-ডে উপহার খুঁজে পেতে সাহায্য করার জন্য কিউরেটেড গিফট গাইড তৈরি করুন। ক্রেতাদের পক্ষে ব্রাউজ করা এবং উপযুক্ত অপশন খুঁজে পাওয়া সহজ করার জন্য বিভাগ, প্রাইস ডিটেইলস বা ইন্টারেস্ট  অনুসারে প্রোডাক্ট গুলো ডিজাইন করুন। যেহেতু অনেকেই কি গিফট দিবে এটা নিয়ে কনফিউজড থাকেন, তাদের সামনে একটা গোছানো ইন্টারফেস রাখুন। যেখান থেকে তারা আইডিয়া ও পাবে আবার সাথে সাথে অর্ডারও করতে পারবে। 

৫. সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করুন:

ফাদার্স-ডে তে বিভিন্ন স্পেশাল প্রচার করতে, কিংবা আপনার অডিয়েন্স এর জন্য নানা রকম উপহারের আইডিয়া শেয়ার করতে এবং গ্রাহকদের সাথে যুক্ত হতে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের সুবিধা নিন। ফাদার্স ডে উপলক্ষে বিভিন্ন ক্যাম্পেইন, কম্পিটিশন, যেমন – ফটো প্রতিযোগিতা হোস্ট করতে পারেন। আপনার প্রোডাক্ট কেনার মাধ্যমে কিভাবে নিজেদের ফাদার্স-ডে সেলিব্রেট করলো এমন সব কনটেন্ট শেয়ার করতে ইনফ্লুয়েন্স করতে পারেন। 

সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করুন

এছাড়াও সোশ্যাল মিডিয়ায় থাকা জনপ্রিয় ইনফ্লুয়েন্সারদের সাথে পার্টনারশিপ করে আপনার ফাদার্স-ডে সেল টার্গেট ফুলফিল করতে পারেন। আপনার প্রোডাক্ট বা সার্ভিস নিয়ে কীভাবে উপকৃত হওয়া যাবে, ইমোশনালি গ্রাহকদের আকৃষ্ট করবে এমন সব সোশ্যাল মিডিয়া কনটেন্ট তৈরি করুন।  

৬. ইন-স্টোর অভিজ্ঞতা উন্নত করুন:

আপনার যদি একটা অফলাইন স্টোর থাকে তাহলে ফাদার্স ডে-থিমযুক্ত ডিসপ্লে দিয়ে দোকানকে সাজিয়ে একটি উৎসবের পরিবেশ তৈরি করুন। ক্রেতাদেরকে আকৃষ্ট করার জন্য এবং কেনাকাটাতে উৎসাহিত করার জন্য নতুন নতুন গিফট আইটেম, ফাদার্স-ডে থিমড ব্যনার বা পোস্টার, গিফট আইটেম ইত্যাদির ব্যবস্থা রাখুন। এছাড়াও অফলাইন শপে প্রোডাক্ট ট্রায়াল, অনশপ ডিসকাউন্ট, অফারের ব্যবস্থা রাখুন। কিংবা আপনাদের সার্ভিস পেতে বাবাকে সঙ্গে নিয়ে আসলে স্পেশাল ডিসকাউন্টের সুযোগ রাখুন। এসব ছোট ছোট বিষয় গুলো একদিকে কাস্টমারের সেলিব্রেশনকে সুন্দর করবে, আপনার ফাদার্স-ডে সেল টার্গেট ও ফুলফিল হবে।  

ইন-স্টোর অভিজ্ঞতা উন্নত করুন

৭. গিফট কার্ড প্রোভাইড করুন:

গ্রাহকদের জন্য একটি অলটারনেটিভ হিসাবে গিফট কার্ড অফার করুন। বিশেষ করে তাদেরকে যারা কি কিনবেন তা নিয়ে অনিশ্চিত। তারা পরবর্তী তে যাতে ডিসিশন নিয়ে পন্য কিনতে পারে এমন সব সুযোগ রাখুন। অনেক সময়ে কিনতে আগ্রহী না হলেও গিফট কার্ডস মানুষকে ২য় বার ভাবতে বাধ্য করে। এটা একটা পশ্চিমা সেলস ড্রাইভিং ট্রিক্স যা অনলাইন, অফলাইনে দুই ধরনের প্লাটফর্মেই দেখা যায়। তাই গিফট কার্ডস দিয়ে কাস্টমারদের ইনডিরেক্টলি গিফট কেনার জন্য একটা তাগাদা দিন।

গিফট কার্ড প্রোভাইড করুন

শেষ কথা, 

ফাদার্স-ডে সেল এর প্লানিং এমন হবে যেখানে কাস্টমার ও আপনি উভয়েই উপকৃত হবেন। অর্থাৎ আপনার বিক্রি করা প্রোডাক্ট যেন দাম, সার্ভিস, কোয়ালিটি সব দিক থেকে কাস্টমারের চাহিদা পূরণে সক্ষম হয়। আবার অফার, ডিসকাউন্ট ও ক্যাম্পেইন পরিচালনার ক্ষেত্রে একটা সুক্ষ্ম হিসাব রাখুন। যাতে যতটুকু সময় ও অর্থ ইনভেস্ট করার হয়েছে পুরোটা রিটার্ন আসে। এই ওভারঅল ব্যালেন্স করতে পারলে খুব সহজেই আপকামিং ফাদার্স-ডে সেল টার্গেট অ্যাচিভ করতে পারবেন। 

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More To Explore
কনটেন্ট মার্কেটিং প্ল্যান বিল্ড করার ৭টি স্টেপ
Marketing

কনটেন্ট মার্কেটিং প্ল্যান বিল্ড করার ৭টি স্টেপ

ডিজিটাল যুগে কনটেন্ট মার্কেটিং, অডিয়েন্সের সাথে যুক্ত হতে, ব্র্যান্ড রেপুটেশন তৈরি করতে এবং কনভার্সন ড্রাইভ করতে চাওয়া ব্যবসা গুলোর জন্য একটা ফাউন্ডেশন হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে।

ফেইসবুক অ্যাডভার্টাইজিংয়ের মাধ্যমে গ্লোবালি প্রোডাক্ট সেল করুন
Marketing

ফেইসবুক অ্যাডভার্টাইজিংয়ের মাধ্যমে গ্লোবালি প্রোডাক্ট সেল করুন

আপনার লোকাল বিজনেসটিকে আরো অ্যাডভান্স করতে, গ্লোবালি প্রোডাক্ট সেল করা একটা গেম-চেঞ্জার হতে পারে এবং ফেসবুক অ্যাডভার্টাইজিং কিন্তু এই পরিবর্তনের একটা গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার। বিশ্বব্যাপী ২.৮ বিলিয়ন