fbpx

ইমেইল মার্কেটিং কি এবং কেন করবেন?

ইমেইল মার্কেটিং

Share This Post

ডিজিটাল কমিউনিকেশন এর সবচেয়ে পুরাতন একটি মাধ্যম হচ্ছে ইমেইল মার্কেটিং। কিন্তু ইমেইল মার্কেটিং এখনো সবচেয়ে ইফেক্টিভ মার্কেটিং চ্যানেল হিসেবে র‍্যাংকে আছে। এই মার্কেটিং তখনই কার্যকর যখন আপনি এটাকে সঠিক ভাবে ব্যবহার করতে পারবেন। 

এখনকার সময়ে অডিয়েন্স বা কাস্টমারের সাথে কমিউনিকেট করার জন্য অনেক নতুন নতুন মেথড এসেছে। কিন্তু এখনও অনেক বড় একটি ইউজার বেইজ আছে ইমেইলে। গ্লোবালি অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের থেকে এই প্ল্যাটফর্মে অডিয়েন্সরা হ্যাংআউট বেশি করে। সেই তুলনায় আমাদের দেশে এখন পর্যন্ত এতো বেশি অডিয়েন্স ইমেইলে থাকেনা। কিন্তু এটাও সত্য যে দিন দিন ইমেইলের প্রয়োজনীয়তা মানুষ বুঝতে পারছে এবং তাই এর চাহিদাও অন্যান্য দেশের মত আমাদের দেশেও বাড়ছে। 

ইমেইল মার্কেটিং এ আপনার নিজস্ব কানেকশন থাকবে। আপনার কোন চিন্তা করতে হবেনা যে এই প্ল্যাটফর্মের অ্যালগরিদম পরিবর্তন হচ্ছে, রিচ কমে যাচ্ছে। অন্যান্য মার্কেটিং এর থেকে অনেক কম খরচে অনেক লিড আপনি কালেক্ট করতে পারবেন এখান থেকে।

ইমেইল মার্কেটিং কি?

আপনার মার্কেটিং স্কিলকে কাজে লাগিয়ে ইমেইলের মাধ্যমে আপনার প্রোডাক্ট এবং সার্ভিসকে প্রোমশন করতে পারবেন এবং তাদেরকে কোন নির্দিষ্ট অ্যাকশন নেয়ার জন্য উৎসাহিত করতে পারবেন। ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনি অনেক গুলো মানুষকে একসাথে ইমেইল পাঠাতে পারবেন। এটা দিয়ে সাধারণত আপনি সেল জেনারেট করতে পারবেন বা লিড কালেক্ট করতে পারবেন। 

ইমেইল মার্কেটিং কেন গুরত্বপূর্ণ

একটি বিজনেসের জন্য ইমেইল মার্কেটিং খুবই গুরত্বপূর্ণ। এবং বিজনেস কমিউনিকেশন এর বেস্ট মাধ্যম হচ্ছে ইমেইল। আপনার বিজনেসের জন্য ইমেইল কেনো প্রয়োজন তার অনেকগুলো কারণ রয়েছে। তার মধ্যে ৩টা উল্লেখযোগ্য কিছু কারণ হলঃ

ইমেইল মার্কেটিং
আপনার নিজস্ব লিস্ট

অনেক সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। যেখানে আপনি রেগুলার পোস্ট করছেন, অন্যান্য মানুষ আপনার সাথে এঙ্গেজ হচ্ছে সেই অ্যাকাউন্টে। কিন্তু আপনার সেই অ্যাকাউন্ট যে কোন সময় ডিসেবল হয়ে যেতে পারে কোন রকম নোটিস ছাড়া। কিন্তু ইমেইলে আপনার কাছে যে লিস্ট থাকবে সেটা আপনার নিজের। সেটা কেউ নিতে পারবেনা আপনার কাছ থেকে।

পার্সোনাল এবং কাস্টমাইজেবল

আপনি যখন কোন সোশ্যাল মিডিয়ার জন্য পোস্ট করেন তখন সেটা সবার উদ্দেশ্য করতে হয় যারা আপনার সাথে কানেক্ট আছেন। কিন্তু ইমেইলে আপনি সেটা পার্সোনালি কাস্টমাইজ করে দিতে পারবেন। আপনি চাইলে আপনার অডিয়েন্সের নাম দিয়ে এবং স্পেসিফিক টপিকে তাদের মেইল করতে পারেন। আবার চাইলে কিছু অডিয়েন্সকে ভাগ করে নিয়ে তাদের একসাথে মেইল করতে পারেন। 

ব্র্যান্ড অ্যাওয়্যারনেস বাড়াতে পারবেন

শুধু সোশ্যাল মিডিয়া এমন প্ল্যাটফর্ম না যেখানে ব্র্যান্ড অ্যাওয়্যারনেস বাড়াতে পারবেন। আপনার কাছে কাস্টমারদের ইমেইল অ্যাড্রেস থাকা মানে হচ্ছে তাদের কোন না কোন ভাবে আপনার বিজনেসে ইন্টারেস্ট আছে। ইমেইল আপনাকে সেই সুযোগ যাতে আপনি তাদের ইন্টারেস্ট লেভেলকে আরো বাড়াতে পারেন। কিন্তু এর মানে এইনা যে আপনি প্রত্যেক কাস্টমারকে প্রতিদিন ইমেইল দিবেন। এটাতে কাস্টমারের ইন্টারেস্ট লেভেল বাড়ার জায়গায় কমে যাবে। অনেক কোম্পানি কাস্টমারের কাছে প্রোডাক্ট সেল করতে চায় কিন্তু ব্র্যান্ড অ্যাওয়্যারনেস ফেক্টরকে সম্পূর্ণ ইগনোর করে। 

ইমেইল মার্কেটিং এর এমন কিছু সুবিধা রয়েছে যার জন্য আপনার ইমেইল মার্কেটিং ব্যবহার করা উচিৎ। 

টার্গেট করে ম্যাসেজ দিতে পারবেন

লিড কালেক্ট করার পর লিডকে নার্চারিং করতে হয়। আপনার পটেনশিয়াল কাস্টমাররা বায়িং সাইকেল এর বিভিন্ন স্টেজে থাকে। কিছু হয়তো কনসিডারেশন স্টেজে থাকে, তখন কিছু হয়তো রিসার্চ এবং কম্পেয়ার স্টেজে থাকে এবং অন্যেরা হয়তো রেডী টু পারচেজ স্টেজে থাকেন। আপনি বায়ার পারসোনা তৈরি করলে বুঝতে পারবেন কোন স্টেজের জন্য কোন কন্টেন্ট বানাতে হবে। এই কাস্টমারদের ইমেইল লিস্টে ভাগ করে ফেললে আপিনি অনেক কার্যকর ভাবে টার্গেট করতে পারবেন কাস্টমারদের। কাস্টমার যে স্টেজেই থাকুক না কেনো পরের স্টেজে যাওয়ার জন্য কাস্টমারকে ইনফরমেশন দিয়ে পুস করতে হবে। আপনি টার্গেট অনুযায়ী কন্টেন্ট কাস্টমারের কাছে পৌছিয়ে সেল জেনারেট করতে পারবেন। 

ব্যয় কম

অন্যান্য মার্কেটিং এর তুলনায় ইমেইল মার্কেটিং এ অবশ্যই ব্যয় কম। আপনি খুব কম খরচ করে অনেক অডিয়েন্সের কাছে আপনার ইমেইল পাঠাতে পারবেন। কনভার্সন ব্যয় খুবই কম থাকে। 

ইমেইল মার্কেটিং এ পরিমাপ করা খুব সহজ
ইমেইল মার্কেটিং

বেশিরভাগ ইমেইল মার্কেটিং টুল দিয়ে আপনি ট্র্যাক করতে পারবেন যে ইমেইল ক্যাম্পেইন চালানোর পর কি হয়েছে। ডেলিভারি রেট, বাউন্স রেট, আনসাবস্ক্রাইব রেট, ক্লিক থ্রু রেট এবং ওপেন রেট কেমন তা জানতে পারবেন। এটা দিয়ে আপনি বুঝতে পারবেন আপনার ইমেইল মার্কেটিং কেমন পারফর্ম করছে। 

সঠিক সময়ে কাস্টমারের কাছে পৌঁছানো

একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে ৫৪ শতাংশ ইমেইল মোবাইল ডিভাইস থেকে খোলা। মোবাইল ডিভাইস ব্যবহার করে বেশিরভাগ কাস্টমাররা তাদের সোশ্যাল মিডিয়া চ্যানেল গুলো এক্সেস করে থাকেন। ভালো করে ডিজাইন করা একটি ইমেইলের অন্যান্য মিডিয়ামের তুলনায় মোবাইলে কনভার্সন রেট খুব ভালো থাকে।

প্রায় সবাই ইমেইল ব্যবহার করে

৯১ শতাংশ কাস্টমার ইমেইল ব্যবহার করে। ইমেইল দিয়ে আপনি অনেক কাস্টমারকে রিচ করতে পারবেন। আপনি শুধু ডিসকাউন্ট , স্পেসাল অফার, এবং নতুন প্রোডাক্টই অফার করতে পারবেন না আরও অনেক কিছু চাইলে দিতে পারবেন। তারা চাইলে সেই ইমেইলটি অন্যেদের সাথে শেয়ার করতে পারবে বা তাদের ফরওয়ার্ড করতে পারবে। একটি ভালো ইমেইল মার্কেটিং স্ট্রাটার্জি অন্য কাস্টমারদের উৎসাহিত করে অফারটাকে শেয়ার করার জন্য। 

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Comment

Your email address will not be published.

More To Explore

ব্রাউজার কিভাবে আয় করে ওয়েব ব্রাউজার এর বিভিন্ন কার্যক্রম যা আমাদের অজানা
Entrepreneur

ব্রাউজার কিভাবে আয় করে? ওয়েব ব্রাউজার এর বিভিন্ন কার্যক্রম যা আমাদের অজানা

ব্রাউজার কিভাবে আয় করে? ইন্টারনেট এর দুনিয়ায় পা রাখতে আমরা সবার আগে আমরা ব্যবহার করেছি ব্রাউজার। ব্রাউজার ব্যবহার করেই আমরা নানান অ্যাপ্স বা সফটওয়্যার এর

বিজনেসে পজিটিভ রেজাল্ট
Entrepreneur

বিজনেসে পজিটিভ রেজাল্ট নিয়ে আসুন ৭ টি বিজনেস স্ট্র্যাটেজিতে

আপনি কি একটি বিজনেস রান করছেন? কিভাবে বিজনেসে পজিটিভ রেজাল্ট নিয়ে আসা যায় তা নিয়ে ভাবছেন? সময়ের পরিক্রমায় বর্তমান সময়ে বিজনেস হয়ে উঠেছে সকল বয়সের