fbpx

উদ্যোক্তাদের জন্য ১০টি বই যা আপনাকে ইউনিক করে তুলবে

উদ্যোক্তাদের জন্য ১০টি বই

Share This Post

জ্ঞ্যান অর্জনের জন্যে বই পড়ার কোন বিকল্প নেই । একজন উদ্যোক্তা হওয়া এবং একটি  বিজনেস রান করা নিসন্দেহে জ্ঞ্যান চর্চার বিষয় । আপনি যত বেশী জানবেন আপনি তত বেশী নিজের অবস্থার উন্নতি করতে পারবেন। আজকে আমরা কথা বলবো উদ্যোক্তাদের জন্য লেখা বিশ্বের শ্রেষ্ঠ ১০টি বই ।

প্রখ্যাত ব্যাক্তিত্ব সৈয়দ মুজতবা আলী বলতেন “বাংলাদেশীদের নাকি বই কিনতে খুব অনীহা কারণ বই পড়ে সময় নষ্ট করার মত সময় নাকি তাদের নেই” আসলেই কি তাই? এখনও শুনি অনেকেই বই পড়া মানে ধরেই নেন যে সাহিত্য কিংবা উপন্যাস পড়া। কিন্তু যখন আপনার নিজে কিছু করার প্রত্যয় থাকে বা উদ্যোক্তামনা হয়ে থাকেন তখন কিন্তু আপনার জন্য বই পড়ার বিকল্প নেই। একজন উদ্যোক্তা ততক্ষন সফল নয় যে পর্যন্ত না তিনি প্রত্যেকটি বিষয়ে পরিপূর্ণ অভিজ্ঞ হয়ে উঠছেন। তার মানে এই যে, আপনি প্রতিদিন কোন না কোন নতুন চ্যালেঞ্জ এর সাথে সম্মুখীন হচ্ছেন।

আপনি যদি একজন উদ্যোক্তা হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনার অবশ্যই এই ১০ টি বই পড়া উচিত ।

১. জিরো টু ওয়ান

বিশ্ব খ্যাত আরররথিক সেবা লেন দেন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান Pay-pal এর ৫ জন প্রতিষ্ঠাতার একজন পিটার থেইল। এক বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদের লেকচার দিয়েছিল কিভাবে ব্যবসায় সফল হ ওয়া যায় । এদের মধ্যে একজন ছাত্র ব্লক মাস্টার্স তার লেকচয়ার এবং পরামর্শ গুলো এত মনোযোগ দিয়ে শুনেছিল এবং নোট করেছিল ।

উদ্যোক্তাদের-জন্য-১০টি-বই

এই নোট এত টাই উপকারী ছিল যে যারা এই পরামর্শ গুলো ফলো করেছিল তারা অনেকেই সফল হয়েছিল । পরবর্তীতে পেটার থেইল অই ছাত্র ব্লক মাস্টার্সের সাথে যোগাযোগ করে এই বই প্রকাশ করে। যেখানে সে ব্যবসায় সফল হবার প্রিন্সিপাল এবং কিভাবে সে শুন্য হাতে বিলিয়নার হয়ে উঠেছেন সেই টেকনিক গুলো জানিয়েছেন। সুতরাং আপনি এই বইটি পরলে যে সমস্ত বিহশয় জানতে পারবেন। কিভাবে শুন্য থেকে শুরু করবেন , কম্পিটিশনকে কিভাবে দেখবেন , টার্গেট কাস্টমার কিভাবে সিলেক্ট করবেন।

২. রিচ ড্যাড পুর ড্যাড

১৯৯৭ সালে প্রকাশিত এই বইটি লিখেছেন রবার্ট কিয়োসাকি। তিনি এখানে ধনী এবং মধ্যবিত্তদের চিন্তা ভাবনার যে পার্থক্য মূলত সে বিষয় নিয়ে লিখেছেন । একজন মধ্যবিত্ত বাবা সন্তানদের শিক্ষিত করেন থিকই কিন্তু চাকরীর পেছনে ছুটতে বলেন। উদ্যোক্তার হতে দেয়ার রিস্ক কোন মধ্যবিত্ত পরিবারইর নিতে চায় না । একজন মধ্যবিত্ত পিতা কখনই ইনভেস্টরস হবার রিস্ক নিতে চায় না

রিচ-ড্যাড-পুর-ড্যাড-

অন্যদিকে একজন ধনী বাবা কখনই চাকরীর বোঝা তার সন্তানদের উপর চাপিয়ে দেয়ার প্রয়োজন বোধ করে না । তাদের জীবন যাপন ইন্ডিপেন্ডেন্ড হয়ে থাকে বেং একজন ধনী পিতা ইন্ডিপেন্ডেন্ট হতেই শেখায় ।

 এই বইটি পড়লে আপনি জানতে পারবেন কেন আপনি ইনভেস্টপমেন্ট নেয়ার রিস্ক নিবেন ।

৩. হাউ টু উইন ফ্রেন্ডস এন্ড ইনফ্লুয়েন্স পিপল

এই বইটি পড়লে আপনি জানতে পারবেন একজন উদ্যোক্তাকে কেন একজন স্পন্টেনিয়াস লিডারশীপের রোল পে করতে হবে ? এবং একজন লিডারের কি কি গুন থাকা উচিত?

হাউ-টু-উইন-ফ্রেন্ডস-এন্ড-ইনফ্লুয়েন্স-পিপল-

আমেরিকার বিখ্যাত লেকচারার ও লেখক “ডেল কারনিগে” লেখা হাউ টু উইন ফ্রেন্ডস এন্ড ইনফ্লুয়েন্স পিপল ১৯৩৭ সালে এই বইটি প্রকাশ করেন ।

৪. স্টার্ট উইথ ওয়াই

এই  বইটিতে লেখক সাইমন সিনেক বলেছেন কিভাবে একজন উদোক্তা কাস্টমারের কাছে পৌছাঁবে?   বইটিতে লেখক যে কোণ ব্যাবসার উদ্দ্যেশ্যকে ৩ টি ভাগে ভাগ করেছেন

স্টার্ট-উইথ-ওয়াই

কী ? কীভাবে এবং কোথায় ? তার মতে একজন উদ্যোক্তাকে কোথায় থেকে শুরু করা উচিত এরপর কিভাবে এবং কী সেক্ষেত্রে একজন উদ্যোক্তা দ্রত সফলতা পাবেন বলে তিনি মনে করেন । এছাড়াও আপনি কিভাবে কাস্টমারকে আপনার পন্যের প্রতি আগ্রহী করবেন এই বইটি পড়লে আপনি তার ধারনা পাবেন ।

৫. দ্যা সেভেন ডে স্টার্ট আপ

 লেখক “ড্যান নরিস” এই বইটি তার জীবনের দীর্ঘ সাত বছর ধরে পরিশ্রমের পর কিভাবে সফলতা পেলেন সেই ঘটনা নিয়ে লিখেছেন ।

দ্যা-সেভেন-ডে-স্টার্ট-আপ-

ড্যান নরিসের মতে একজন উদ্যোক্তাকে তার লক্ষ্য, আত্নবিশ্বাস ও কঠোর পরিশ্রম তাকে সফল করে তুলতে পারে  কিন্তু তাকে স্মার্ট হতে হবে অবশ্যই এবং নানান ইউনিক আইডিয়া বিল্ড আপ করে মাধ্যমে কীভাবে কাস্টমারদের আকর্ষণ করার কৌশল তৈরী করতে হবে । বইটিতে উদ্যোক্তাদের উৎসাহিত করতে বোঝাতে চেয়েছেন একজন চাকুরীজীবি পৃথিবীতে পরিবর্তন আনতে পারেন না কিন্তু একজন উদ্যোক্তার পক্ষে তা সম্ভব ।

৬. দ্যা লীন স্টার্টআপ

এই বইটি লিখেছেন “এরিক রিয়েসে” । বইটিতে বলা হয়েছে কেন ব্যর্থ হ ওয়া জরুরী এবং ব্যররথতা থেকে আপনি কিভাবে শিখবেন।  কোন একটি স্টার্টআপ ব্যর্থ হলে সেখান থেকে কিভাবে উঠে আসা যায় এবং এগিয়ে যাওয়া যায় এখানে তুলে ধরা হয়েছে। একজন উদ্যোক্তা তার ব্যবসাকে কীভাবে পরিচালনা করতে পারেন এবং কোন পদক্ষেপ তার ব্যবসাযকে আর ও দীর্ঘমেয়াদী করবে তার বর্ননা করা হয়েছে এই বইটিতে।

দ্যা-লীন-স্টার্টআপ

কীভাবে বিজনেস অপারেট করবেন, কখন এক্সপান্ড করবেন এবং বিজনেস এর গ্রোথ কন্টিনিউ করবেন এই তিনটি জিনিসকে লেখক গুরুত্ব দিয়েছেন। এই বইয়ের মূল কথা হচ্ছে, “তৈরি করুন-পর্যবেক্ষণ করুন-শিখুন”-যে কোন স্টার্টআপকে বড় করে তুলতে এই মডেল দারুণ কার্যকর।

৭. দ্যা সেভেন হেভিট অফ হাইলি এফেক্টিভ পিপল

 “স্টেফেন আর কোভে” লেখা এই বইটি উদ্যোক্তাদের জন্য একটি পার্সোনালাইজেশন হিসেবে কাজ করে। এই বইটিতে পৃথিবীর সফল উদ্যোক্তাদের মধ্য থাকা ৭টি অভ্যাসের কথা বলা হয়েছে।

দ্যা-সেভেন-হেভিট-অফ-হাইলি-এফেক্টিভ-পিপল

উদ্যোক্তা কীভাবে নিজেকে প্রাণবন্ত রাখতে পারে এবং কোন কাজ শেষে তার ফলাফল কেমন হতে পারে তা নিয়ে ভাবতে বলেছেন লেখক বইটিতে। সবার চেয়ে এক ধাপ এগিয়ে থাকার জন্যে আপনি কোন কাজকে বেশী প্রাধান্য দিবেন তা নিয়ে আলচনা করা হয়েছে । এছাড়াও একজন উদ্যোক্তা কীভাবে কোলাবোরেশন, কমিউনিকেশন ও টিমওয়ার্কের স্কিল ডেভেলপ করবে কেন করবেন তা নিয়ে ও আলোচনা করা হয়েছে।

৮. গুড টু গ্রেট

“জেমস সি কলিন” এর লেখা এই বইটিতে লেখক লিকেছেন একটি ইন্ড্রাস্টিতে কিছু কোম্পানী কীভাবে একচিটিয়া ব্যবসায করে থাকে অপরদিকে কিছু কোম্পানী কীভাবে ব্যর্থ, এবং এর জন্যে তাদের কোন ভুল গুলো দায়ী ?

টু গ্রেট

কী ধরনের পদক্ষেপ কোম্পানীতে সফলতা এনে দেয় ও কী ধরণের স্ট্রাটের্জি লংটার্ম সার্ভিস দিবে তা নিয়ে আলচনা করা হয়েছে। বইটিতে প্রায় ২৫টি কোম্পানী হতে প্রাপ্ত ডাটা দিয়ে সাজানো হয়েছে। কীভাবে যোগ্য লিডারশিপ হয়ে উঠা যায়, কাদের বেশি প্রাধান্য দিতে হবে, এবং নিয়ম অনুযায়ী কর্মীদের কীভাবে কাজ করাতে হবে তা বলা হয়েছে।

৯. দ্যা টিপিং পয়েন্ট

টিপিং পয়েন্ট

২০০০ সালের মার্চ মাসে ম্যালকম গ্ল্যাডওয়েল দ্বারা দ্যা টিপিং পয়েন্ট সর্বপ্রথম প্রকাশিত হয়। এই বইটি মূলত সোশ্যালজি, সাইকোলজি ও ঐতিহাসিক ঘটনাকে কেন্দ্র করে তৈরী। কীভাবে অতীতে ছোট ছোট পদক্ষেপ বড় পরিবর্তন আনতে সক্ষম হয়েছে এই বইটিতে তা তুলে ধরা হয়েছে। তুচ্ছ কোন কিছু কীভাবে বৃদ্ধি পেয়ে বড় পরিবর্তন আস্তে পারে এই বইটি পরে সেটা জানা যাবে। 

১০. থিঙ্ক অ্যান্ড গ্রো রিচ

নেপোলিয়ান হিল কর্তৃক থিঙ্ক অ্যান্ড গ্রো রিচ বইটি ১৯৩৭ সালে প্রকাশিত হয়। বইটিতে লেখক ৫০০ সফল মানুষের সাক্ষাৎ নেন এবং সেখান থেকে ৬টি জিনিসকে আলাদা করেন যা একজন মানুষকে সফলতার দ্বারপ্রান্তে আনতে সাহায্য করবে। লেখকের মতে একজন মানুষের গ্রোথ তার চিন্তাশক্তির উপর নির্ভর করে। যত চিন্তা বেশী ঠিক ততোটাই গ্রোথ বেশী। বিশ্বাস, চিন্তাশক্তি ও চেষ্টা দিয়ে উদ্যোক্তাদের উদ্বুদ্ধ করতে চেষ্টা করেছেন।

থিঙ্ক-অ্যান্ড-গ্রো-রিচ

জ্ঞানচর্চায় বইয়ের বিকল্প নেই। তাই একজন সফল উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে তৈরী করতে বই আপনার সঙ্গী হতে পারে। তাই বর্ণিত বই দ্বারা নিজেকে আর্দশ উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলুন।

পুরো লেখাটি কেমন লাগলো, তা অবশ্যই আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন। আপনাদের প্রতিটি মতামতই আমাদের কাছে সত্যিই অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

যদি মনে হয় লেখাটি নতুন উদ্যোক্তাদের সাহায্য করবে পরবর্তী দিক নির্দেশনা পেতে, তবে শেয়ার করে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন।

এই ধরনের আরও অনেক ইনফো কনটেন্ট এর জন্য আমাদের সাথেই থাকুন।

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Comment

Your email address will not be published.

More To Explore

ব্রাউজার কিভাবে আয় করে ওয়েব ব্রাউজার এর বিভিন্ন কার্যক্রম যা আমাদের অজানা
Entrepreneur

ব্রাউজার কিভাবে আয় করে? ওয়েব ব্রাউজার এর বিভিন্ন কার্যক্রম যা আমাদের অজানা

ব্রাউজার কিভাবে আয় করে? ইন্টারনেট এর দুনিয়ায় পা রাখতে আমরা সবার আগে আমরা ব্যবহার করেছি ব্রাউজার। ব্রাউজার ব্যবহার করেই আমরা নানান অ্যাপ্স বা সফটওয়্যার এর

বিজনেসে পজিটিভ রেজাল্ট
Entrepreneur

বিজনেসে পজিটিভ রেজাল্ট নিয়ে আসুন ৭ টি বিজনেস স্ট্র্যাটেজিতে

আপনি কি একটি বিজনেস রান করছেন? কিভাবে বিজনেসে পজিটিভ রেজাল্ট নিয়ে আসা যায় তা নিয়ে ভাবছেন? সময়ের পরিক্রমায় বর্তমান সময়ে বিজনেস হয়ে উঠেছে সকল বয়সের