fbpx

জনপ্রিয় অনলাইন মেডিকেল সার্ভিস অ্যাপ – ডক টাইম (Doc Time)

doc time

Share This Post

ডক টাইম (Doc Time), একটি অনলাইন টেলিমেডিসিন সার্ভিস অ্যাপ। ঘরে বসে প্রয়োজনে ডাক্তার কনসাল্ট করানোর জনপ্রিয় একটি প্ল্যাটফর্ম। সময়মত হাতের কাছে চিকিৎসা সেবা বা অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ” ভাবলেই নানা ধরণের ঝামেলার কথা মাথায় আসে আমাদের। এর পর ডক্টরের কাছে লম্বা সিরিয়াল তো রয়েছেই। হঠাৎ কেউ অসুস্থ হয়ে গেলে নেই কোন উপায় ডক্টরের কাছ থেকে সাজেশন নেয়ার। প্রযুক্তির কল্যানে যখন সবকিছুই আমরা হাতের নাগালে পাচ্ছি সেখানে সাস্থ্য সেবা কেন নয়?

তবে আশার কথা হচ্ছে টেকনোলজিকে কাজে লাগিয়ে অনলাইন বেসড স্বাস্থ্যসেবা প্রোভাইড করছে অনেক জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম, তাদের মধ্যে অন্যতম অনলাইন মেডিকেল সার্ভিস এবং টেলিমেডিসিন প্ল্যাটফর্ম, ডক টাইম (Doc Time)। চলুন আজকে জানি এই টেকবেসড প্ল্যাটফর্মটি সম্পর্কে।

ডক টাইম (Doc Time) এর অনলাইন মেডিকেল সার্ভিস

একজন পেশেন্ট অভিজ্ঞ ডক্টরদের সাথে কনসাল্টেশন পেতে পারেন খুব সহজেই ভিডিও কলের মাধ্যমে সাথে থাকছে অনলাইন ইন্সট্যান্ট প্রেস্ক্রিপশন এর সুবিধা। বিশেষ করে এফোর্ডেবল প্রাইসে ঘরে বসেই ২৪\৭ আপনি ডক টাইম (Doc Time) এর সার্ভিস নিতে পারছেন । বিভিন্ন সেক্টরের স্পেশালিস্ট ডক্টরদের সমন্বয়ে একটি বিশেষজ্ঞ প্যানেল দিয়ে পরিচালিত হচ্ছে এই সার্ভিসটি। যেমন জেনারেল ফিজিশিয়ান, চাইল্ড কেয়ার, গাইনোকলজিস্ট, নিউরলোজি, হারবাল মেডিসিন, কিডনি, কার্ডিওলোজি, আই, ডেন্টাল কেয়ার, ডায়বেটিক্স সহ আরো অনেক।

খুব সহজেই তাদের সার্ভিস এভেইল করা পসিবল হয় যেমন প্রথমে তাদের অ্যাপ ইন্সটল করতে হবে। সেখানে আপনার প্রয়োজনীয় ইনফরমেশন দিয়ে অ্যাকাউন্ট ওপেন করতে হবে। অ্যাকাউন্ট ওপেন করার পর আপনি তাদের বিভিন্ন সার্ভিস গুলো দেখতে পাবেন।

ডক টাইম সার্ভিস (Doc Time service)

তাদের সার্ভিস সেকশনে হেলথ কেয়ার অ্যান্ড প্রোটেকশন প্ল্যানস রয়েছে। যেখানে পেমেন্ট এমাউন্ট এর উপর ভিত্তি করে ব্রঞ্জ, সিল্ভার, গোল্ড, প্লাটিনাম, ডায়মন্ড এবং ফ্যামিলি সহ ৬ ধরণের প্ল্যানে সাবস্ক্রিপশন করার সুযোগ পাবেন।

তাদের প্রত্যেকটি প্ল্যানে আপনি পাচ্ছেন আনলিমিটেড কনসাল্টেশন অভিজ্ঞ ডিউটি ডক্টরদের কাছ থেকে। প্রতিটা ল্যাব টেস্টে এবং হোম সেম্পলসে ৪০ পারসেন্ট পর্যন্ত থাকছে ডিস্কাউন্ট। সাথে ৫ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট এভেইল করতে পারবেন অনলাইন মেডিসিন পারচেজ এর ক্ষেত্রে। অনলাইন প্রেস্ক্রিপশন সহ পাচ্ছেন মেডিসিন রিমাইন্ডার, আপনার পার্সোনাল পেশেন্ট রেকর্ড, এবং ডেইলি হেলথ অ্যান্ড কোয়ালিটি লাইফ অ্যাডভাইস।

তাছাড়া বিভিন্ন প্ল্যানের রয়েছে কিছু ভিন্ন ফিচার। যেমন ব্রঞ্জ প্ল্যানে প্রতিমাসে মাত্র ৪৮ টাকায় এবং পুরো বছরে ৫৭০ টাকার বিল পে করে এভেইল করতে পারবেন।

ডক টাইম ডায়মন্ড প্ল্যান (Doc Time diamond plan)

তাদের সিল্ভার প্ল্যানে হসপিটাল অ্যাডমিশনের উপর ২০,০০০ টাকা ক্যাশব্যাক এর সুবিধা এবং মৃত্যুকালীন ক্যাশ রিটার্ন এর সুবিধা যেখানে সিল্ভারে প্ল্যানে আপনাকে প্রতি মাসে ৯৬ টাকা করে বছরে ১১৫০ টাকা চার্জ দিতে হবে।

তাদের গোল্ড অপশনে স্পেশিয়ালিস্ট দের সাথে ৪ টি ফ্রি কনসাল্টেশন এর সুযোগ পাবেন। হসপিটালের এক্সপেন্স কভার করার জন্য ২৫০০০ টাকা এবং গুরতর অসুসস্থতা কভার করার জন্য ১ লাখ টাকা পাবেন। গোল্ড অপশনে বছরে আপনাকে ২৩০০ টাকা পে করতে হবে। এবং বর্তমানে গোল্ড প্ল্যাণটি হচ্ছে তাদের সবচেয়ে পপুলার প্ল্যান। পাশাপাশি প্ল্যাটিনাম প্ল্যানে  ৫০০০০ টাকার হসপিটাল কভারেজ এবং ১০০০০০ টাকা পর্যন্ত পাচ্ছেন গুরতর অসুসস্থতায়।

ডায়মন্ড প্ল্যানে মাসে মাত্র ৩০৪ টাকা পে করে স্পেশিয়ালিস্টদের সাথে পাচ্ছেন পুরো ১২টি কনসাল্টেশন এবং পেশেন্ট এর এক্সিডেন্টে মৃত্যু বা নরমাল মৃত্যু অথবা হসপিটাল এক্সপেন্স কভারেজ এ হোক পাচ্ছেন পুরো ১ লাখ টাকা।

তাদের সবশেষ ফ্যামিলি প্ল্যান অন্যান্য সুবিধার সাথে পুরো ৮টি কনসাল্টেশন পাবেন স্পেশিয়ালিস্টদের সাথে এবং হসপিটাল এক্সপেন্স হিসেবে পাবেন ১ লাখ টাকা পর্যন্ত ফ্যাসিলিটি। এছাড়াও আপনি এই প্ল্যানে ফ্যামিলির ৪ জন মেম্বার এর জন্য ডক্টর কনসাল্ট করতে পারবেন। যার জন্যে আপনার বছরে পে করতে হবে ৬৩৩০ টাকা।

এছাড়া আপনি তাদের প্ল্যান গুলোতে সাবস্ক্রিপশন না করে যখন প্রয়োজন হবে তখন ডক্টর দেখাতে চান তাহলে লাইভ অ্যাডভাইস থেকে খুব সহজে আপনার যে সেক্টরে ডক্টর প্রয়োজন সেটা সিলেক্ট করে নিতে পারবেন এবং সেখানে আপনি তাদের রিভিউ, তাদের এক্সপিরিয়েন্স এবং তাদের কনসাল্টেশন ফি সব ডিটেইলস পাবেন তাদের প্রোফাইলের নিচে এবং ডক্টর সিলেক্ট করে বিকাশ, রকেট, মাস্টার কার্ড,অথবা ভিসা কার্ড থেকে কনসাল্টেশন ফি পে করে ডক্টর দেখাতে পারবেন। আপনি অ্যাপ্সে গেলে দেখতে পাবেন কতজন ডক্টর অনলাইনে আছে। যারা শুধু মাত্র আপনাকে ইন্সট্যান্ট সাপোর্ট দিতে পারবে আপনি শুধু তাদেরকেই দেখতে পাবেন।

ডক্টর দেখানোর পর লাইভ ইনস্ট্যান্ট প্রেস্ক্রিপশন সুবিধা এবং প্রেস্ক্রিপশন পাওয়ার পর আপনি চাইলে এখান থেকে মেডিসিন অর্ডার করতে পারবেন এবং আপনি যদি সিটির মধ্যে থাকেন তাহলে ২ ঘন্টার মধ্যে আপনাকে মেডিসিন বাসায় ডেলিভারি দিয়ে যাবে এই অনলাইন মেডিকেল সার্ভিস প্রোভাইডার প্ল্যাটফর্ম।

পেশেন্টদের পাশাপাশি ডক্টরদের জন্যও রয়েছে অনেক সুযোগ সুবিধা। একজন কোয়ালিফাইড ডক্টর চাইলেই তার ফ্রি সময় ডক টাইম (Doc Time) এর পেশেন্ট কনসাল্ট করতে পারবেন। এই প্ল্যাটফর্মের প্রতিজন ডক্টর বি এম ডি সি অথোরািজড এবং তারা ডক টাইম (Doc Time) এর লেটেস্ট টেকনোলোজি ব্যবহার করে তাদের কনসাল্টেশন প্রোভাইড করে থাকেন। ডক্টররা এখানে স্বাধীনভাবে তাদের সার্ভিস দিতে পারবেন এবং ডক টাইম (Doc Time) টেকনিক্যাল টিমের সাপোর্ট নিতে পারবেন। সেটা সেশনের চলাকালীন সময়ে হতে পারে অথবা সেশনের বাহিরে।

ডক টাইম (Doc Time) এর শুরুর গল্প

ডক টাইম (Doc Time) এর ফাউন্ডার আনোয়ার হোসেন, ২০২০ সালের অক্টোবরের দিকে এই প্ল্যাটফর্মটির যাত্রা শুরু করেন। তিনি গ্রামে বড় হয়েছেন। কিন্তু বর্তমানে প্রবাসী। তার শৈশবকাল থেকে তিনি দেখেছেন গ্রামের কিংবা শহর, প্রতিটা পেশেন্ট ডক্টর দেখাতে প্রব্লেম ফেস করে। লম্বা সিরিয়াল, টাইম আরও রয়েছে নানাবিধ ঝামেলা। যেহেতু সবকিছু ডিজিটালি হচ্ছে তো ডক্টরও যদি ঘরে বসে দেখানো যায় অনেক ভোগান্তিই কমে যায়।

ডক টাইম সার্ভিস (Doc Time service)

প্রথম দিকে তাদের ডক্টরদের বুঝানো এবং কনভেন্স করাটা বেশ চ্যালেঞ্জিং বিষয় ছিলো। তখন পরিচিত ডক্টর, ফ্রেন্ডস ফ্যামিলি থেকে তারা সার্ভিস প্রোভাইড করতেন। প্রায় ৫০ থেকে ৬০ জন ডক্টর নিয়ে স্টার্ট করেছিলেন তারা। তারপর আস্তে আস্তে যখন মানুষ সেবা নেয়া শুরু করেছেন, ডাক্তাররাও তাদের সার্ভিস চার্জ পেয়ে যাচ্ছেন। যেই থেকে যাত্রা শুরু করে বর্তমানে তাদের প্রায় ২৫ টি সেক্টরের স্পেশিয়ালিস্ট রয়েছেন তাদের এডভাইজর প্যানেলে।

বাংলাদেশী মানুষদের জন্যে high-volume medical assessments এবং এই ডাক্তার কনসাল্ট করানোর বিষয়টাকে আরও সহজ এবং স্মুথ করার জন্য কাজ করছে এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মটি।

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Comment

Your email address will not be published.

More To Explore

ব্রাউজার কিভাবে আয় করে ওয়েব ব্রাউজার এর বিভিন্ন কার্যক্রম যা আমাদের অজানা
Entrepreneur

ব্রাউজার কিভাবে আয় করে? ওয়েব ব্রাউজার এর বিভিন্ন কার্যক্রম যা আমাদের অজানা

ব্রাউজার কিভাবে আয় করে? ইন্টারনেট এর দুনিয়ায় পা রাখতে আমরা সবার আগে আমরা ব্যবহার করেছি ব্রাউজার। ব্রাউজার ব্যবহার করেই আমরা নানান অ্যাপ্স বা সফটওয়্যার এর

বিজনেসে পজিটিভ রেজাল্ট
Entrepreneur

বিজনেসে পজিটিভ রেজাল্ট নিয়ে আসুন ৭ টি বিজনেস স্ট্র্যাটেজিতে

আপনি কি একটি বিজনেস রান করছেন? কিভাবে বিজনেসে পজিটিভ রেজাল্ট নিয়ে আসা যায় তা নিয়ে ভাবছেন? সময়ের পরিক্রমায় বর্তমান সময়ে বিজনেস হয়ে উঠেছে সকল বয়সের