বাংলাদেশী জনপ্রিয় স্মার্ট লজিস্টিক প্ল্যাটফর্ম – পেপার ফ্লাই

পেপার ফ্লাই

Share This Post

Share on facebook
Share on linkedin
Share on twitter
Share on email

ইকমার্স গত কয়েক বছর ধরে আমাদের জন্য ব্লেসিং এর মতো কাজ করে আসছে ডিজিটাল দুনিয়ায়। ই কমার্সের প্লাটফর্ম গুলোর মাধ্যমে আমরা এখন সব কিছু হাতের নাগালের মধ্যে পেয়ে যাই চাইলেই। আর সময়ের সাথে সাথে জীবনকে আরোও সহজ এবং ডিজিটালি ইম্প্রুভ করতে হলে অবশ্যই আমাদের ই কমার্স প্লাটফর্ম এর সংখ্যা আরও বাড়াতে হবে। 

কিন্তু এই ই কমার্স বিজনেস করার কথা ভাবলেই অনেক ধরণের প্রশ্ন মাথায় আসে। তার মধ্যে মোস্ট কমন প্রশ্ন গুলো হলো প্রোডাক্টগুলো আমি কতটা সহজে ডেলিভারি পেতে পারি ? এছাড়াও সময়মতো কাস্টমারেরর কাছে প্রোডাক্ট পৌঁছানো ,কাস্টমার এর কাছে প্রোডাক্ট পৌঁছানো পর্যন্ত তা গুণগত মান ঠিক রাখা সহ বেশ কিছু চ্যালেঞ্জ ছিল ইকমার্স প্লাটফর্মগুলোর জন্য। কিন্তু বিগত বেশ কিছু বছর ধরে এই সমস্যার সমাধান নিয়ে কাজ করে আসছে বেশ কিছু ডিজিটাল প্রোডাক্ট ডেলিভারি প্লাটফর্ম, যার মধ্যে অন্যতম একটি প্লাটফর্ম পেপারফ্লাই। 

আপনি হয়তো একটি ইকমার্স প্লাটফম ম্যানেজ করছেন , কিন্তু যখন প্রোডাক্ট ডেলিভারি করার কথা চিন্তা করবেন তখন আপনাকে ভাবতে হবে কিভাবে কত সহজে কাস্টমার এর কাছে পণ্য পৌঁছানো যায়! তবে এখন বেশ প্লাটফর্ম এই সুবিধাটি দিয়ে আসছে নিরবিচ্ছিন্ন ভাবে। 

পেপার ফ্লাই তেমনি একটি জনপ্রিয় প্লাটফর্ম। ২০১৬ সালে প্রতিষ্টিত এই নেটওয়ার্কটি নিরবিচ্ছিন্ন ভাবে গত ০৫ বছর তাদের এই সার্ভিস প্রোভাইড করে আসছে। 

প্রোডাক্ট অর্ডার করার পর থেকে আপনার প্রোডাক্ট এর সকল দায়িত্ব নিয়ে থাকে প্লাটফর্মটি । পেপারফ্লাই মার্চেন্ট দের প্যাকেজিং, হোম ডেলিভারি, ক্যাশ-অন-ডেলিভারি , ফ্রি ডোর টু ডোর পিক আপ সার্ভিস সহ বেশ কিছু সুবিধা দিয়ে আসছে দারুণভাবে , সেটি আবার ২৪ থেকে ৭২ ঘন্টা সময়ের মধ্যে।

“পেপার ফ্লাই” একটি স্মার্ট লজিস্টিক কোম্পানি যার ফাউন্ডার এবং সিইও শাহরিয়ার হাসান। ২০১৬ সালে পেপার ফ্লাই স্টার্ট করেন যা অনলাইন মার্চেন্টদের কথা মাথায় রেখেই তার যাত্রা শুরু করে। অনলাইন মার্চেন্টরা যেন স্বাছন্দ্য বিজনেস করতে পারেন সেই দিক ভেবেই পেপারফ্লাই তার সকল প্রোডাক্ট এবং সার্ভিস দিচ্ছে।

51

আছে তাদের দেশজুড়ে ডোরস্টেপ পিক-আপ সার্ভিস। আপনি বাংলাদেশের যেকোন প্রান্তে থাকুন না কেন সেখানে বসেই আপনার অর্ডারটি প্লেস করতে পারবেন পাপেরফ্লাই এর মাধ্যমে এবং পেপার ফ্লাইয়ের টিম মেম্বার এসে আপনার কাছ থেকে আপনার পন্যটি পিক করবে। ডোরস্টেপ ডেলিভারি তে স্বাভাবিক ভাবে একটু সময় সাপেক্ষ হয়ে থাকলেও শুধু মাত্র পেপার ফ্লাই আপনাকে দিচ্ছে ২৪ থেকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে পিক আপ সার্ভিস যেটা ডেলিভারি করা হবে সারা বাংলাদেশে। 

পেপারফ্লাই মার্চেন্টদের দিচ্ছে সম্পূর্ণ ফ্রি তে পিক আপ সার্ভিস। পেপার ফ্লাইয়ের রয়েছে পুরো বাংলাদেশ জুড়ে নিজস্ব সেটাপ । ১০০০ জনের ডেলিভারি টিম মেম্বার এর মাধ্যমে সারাদেশে ৮০ টি পয়েন্ট অফিস থেকে পেপারফ্লাই ৪৪৫৪ ইউনিয়নে ডোর টু ডোর ডেলিভারি সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও যেটা বৃদ্ধি করে ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাস থেকে ২১৬টি পয়েন্ট থেকে তারা ডেলিভারি দিচ্ছে সারা বাংলাদেশে জুড়ে। ঢাকার ভিতরের সমস্ত অর্ডার একদিনে ডেলিভারি দিচ্ছে পেপারফ্লাই। আপনি পাচ্ছেন ৩৬৩ দিন সার্ভিস শুধু ঈদের ২ দিন ছাড়া। একমাত্র পেপারফ্লাই –এর রয়েছে সারাদেশ জুরে ডোর টু ডোর ডেলিভারি কভারেজ।

কাস্টমারদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে ক্যাশ অন ডেলিভারি প্রেফার করে পেপারফ্লাই দিচ্ছে কাস্টমারদের ক্যাশ অন ডেলিভারি সার্ভিস।পাশাপাশি নিশ্চিত করছে ৫ দিন পন্য ডেলিভারির সংগৃহীত অর্থ মার্চেন্টদের কাছে জমা।  

এছাড়াও বেস্ট সেলারদের জন্য রয়েছে তাদের বিভিন্ন স্পেশাল প্যাকেজ তার মধ্যে আপনি যদি সেলারওয়ান মার্চেন্ট হয়ে থাকেন তাহলে  পাচ্ছেন আরও বেশিসুবিধা। সেলারওয়ান মার্চেন্ট দের কাস্টমারের কাছ থেকে পাওয়া ক্যাশ অন ডেলিভারীর পেমেন্টটি সংগ্রহ করার ০১ ঘণ্টার মধ্যেই আপনার মার্চেন্ট অ্যাকাউন্ট এ সেই টাকা জমা হয়ে যাবে। 

এছাড়াও স্মার্ট পেমেন্ট সল্যুশন সুবিধার পাশাপাশি ইনসাইড ঢাকা ও ঢাকার পরিধির মধ্যে ডেলিভারি চার্জ থাকছে মাত্র ৫০ থেকে ৯০ টাকা এবং ঢাকার বাহিরে চার্জ হিসেবে থাকছে ১২০ টাকা পর্যন্ত। এছাড়াও সেলারওয়ান মার্চেন্ট দের জন্যে থাকছে বেশ কিছু এক্সট্রা ফেসিলিটি। 

তাদের একটি সার্ভিস হচ্ছে পেপার ফ্লাই গো অ্যাপ। যার মধ্যমে অর্ডার ট্র্যাকিং এর পরিপূর্ণ নিয়ন্ত্রন আপনি করতে পারবেন। এই অ্যাপের মধ্যে থাকছে মার্চেন্ট পেমেন্টের তথ্য, অর্ডার প্লেসমেন্ট, নোটিফিকেশন এবং আপনার প্রয়োজনীয় সকল আপডেট ইনফরমেশন । এবং আরও পাচ্ছেন “ক্যাশলেস পে সার্ভিস”। প্রযুক্তিগত সুবিধা দেশের ই কমার্স এর  কনজিউমার, মার্কেটপ্লেস এবং সেলার সবাইকে আরও শক্তিশালী করে তুলবে। 

50

পেপারফ্লাই তে পাচ্ছেন আপনি “ স্মার্ট লগ” এবং “ইন-অ্যাপ কল” এর মত ফিচার। যেখানে আপনি বিস্তারিত জানাতে পারবেন ডেলিভারি কালিন অভিজ্ঞতা,  গ্রাহকের প্রতিক্রিয়া এবং রিটার্ন অর্ডার সম্পর্কিত সকল তথ্য।  এবং এখন আপনি গ্রাহক ও ডেলিভারি অফিসারের মধ্যকার প্রতিটি কনভার্সেসন শুনতে পারবেন ইন-অ্যাপ কলের মাধ্যমে। 

ডেলিভারি সংক্রান্ত সমস্ত ইনফরমেশন তাদের সিস্টেমে রিয়েল টাইম আপডেট করার জন্য পেপারফ্লাই তাদের ডেলিভারি অ্যাপ দিয়ে প্রতিটি ডেলিভারি আপডেট দিয়ে থাকে। তাই মার্চেন্ট তার সুবিধা মত এই তথ্য ব্যবহার করতে পারেন।

কাস্টমার যদি কোন কারণে তার অর্ডার বা তার প্রোডাক্ট রিটার্ণ করে অথবা কোন পন্যের আংশিক নেয় বাকি গুলো ফেরত দিয়ে থাকে সেই রিটার্ণ করা প্রোডাক্ট ঢাকার মধ্যে ৭ দিনের মধ্যে এবং ঢাকার বাহিরে ১৫ দিনের মধ্যে মার্চেন্টকে ফিরিয়ে দেয়া হয়। আরও মার্চেন্টরা তাদের যে কোন প্রয়োজনে পেপারফ্লাইয়ের  হটলাইন নম্বরে কল দিতে পারে। 

পেপারফ্লাই এর জন্ম রাতারাতি হয়নি। পেপারফ্লাই এর ৩ জন কো-ফাউন্ডার উদ্যোক্তার এই জগতে আসার আগে ১০ বছরের ও বেশি সময় ধরে কর্পোরেট জব করতেন। পেপারফ্লাই এর আগেও তারা বেশ কিছু স্টার্টআপ আইডিয়া নিয়ে চেষ্টা করেছিলেন তারা। কিছু আইডিয়া কাজ করেছিল আর কিছু করেনি। তারা ই কমার্স এবং এফ কমার্স এর কথা ভাব্ছিলো তখন তাদের মনে হয় যদি লজিস্টিক ভেঞ্চাররা প্রোডাক্ট অনলাইনে অর্ডার দেয়ার পর সকল দায়িত্ব নিত প্রোডাক্ট এর তাহলে বিষয় টা কেমন হত। 

ঠিক এই চিন্তা থেকে পেপারফ্লাই এর মত স্মার্ট লজিস্টিক কোম্পানির শুরু হয়েছে এবং তাদের লিঙ্কডিন এর তথ্য অনুসারে সারাদেশ জুড়ে ১২০০ এর বেশি ইমপ্লোয়ি নিয়ে পেপারফ্লাই বর্তমানে তাদের কর্পোরেট হেড অফিস পরিচালনা করছেন ঢাকার মহাখালী তে। 

রিসেন্টলি ২০২১ সালের জানুয়ারিতে পেপারফ্লাই প্রথমবারের মতো তাদের ফান্ডিং কালেক্ট করেছে। গ্লোবাল ইনভেস্টমেন্ট প্লাটফর্ম  ওয়েভমেকার পার্টনার্সের নেতৃত্বে একটি কর্পোরেট রাউন্ডে ১১.৮ মিলিয়ন ডলার সংগ্রহ করেছে এই স্মার্ট লজিস্টিক কোম্পানি। পেপার ফ্লাই চায় ফিউচারে প্রত্যেকটি কাস্টমারের যে কোন রিকয়ারম্যান্ট তারা যেন পূরণ করতে পারে। 

Subscribe To Our Newsletter

Get updates and learn from the best

More To Explore

সোশ্যাল মিডিয়া
Case Study

সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলো কীভাবে মিলিয়ন ডলার আয় করে !

আসলে তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে যেসকল সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে একটি ভার্চুয়াল কমিউনিটি বা কৃত্রিম সমাজ গড়ে তোলা যায় তাকেই মূলত সোশ্যাল মিডিয়া বা

বিজনেস আইডিয়া - Business idea
Business idea

ডিজিটাল সময়ে ২৩টি ইউনিক বিজনেস আইডিয়া

ইউনিক বিজনেস আইডিয়া খুঁজছেন? চাকরি করবো কেন, চাকরি দিবো এবং নিজের বস নিজে হবো। নিজস্ব বিজনেস থাকলে নিজের স্বাধীনতা থাকে। কখন, কোথায়, কিভাবে করবেন সবকিছু