fbpx

আপস্কিল (upskill) – জনপ্রিয় পিয়ার টু পিয়ার স্কিল শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম

upskill

Share This Post

পার্সোনাল স্কিল অথবা বিজনেস স্কিল – ডেভেলপমেন্ট এর কথা যখনই ভাবি, সবচেয়ে বড় যেই ব্যাপারটি মাথায় আসে সেটি হলো কোয়ালিটি কনটেন্ট এর সাথে মেন্টরশীপ। বলতেই হয় গত কয়েক বছরে এডটেক (Ed-tech) ইন্ডাস্ট্রিতে আমাদের রাইজিং খুব দারুন ঘটেছে। তাই আপনি যদি নিজের বিজনেস স্কিল ডেভেলপমেন্ট করতে চান, স্কিল শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম Upskill এর কথা না জানলেই নয়, খুব অল্প সময়েই যারা নিজেদের পরিচিত করেছে বেশ দারুণভাবে। জায়গা করে নিয়েছে দেশের টপ লেভেল লার্নিং এন্ড আার্নিং ইন্সটিটিউট হিসেবে। এই প্ল্যাটফর্মে আপনি যেমন আপনার দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে আয় করতে পারবেন। শেয়ার করতে পারবেন আপনার ট্যালেন্টগুলো। আবার এখান থেকে পাচ্ছেন নতুন নতুন সফট স্কিল বাড়ানোর সুযোগ। মোট কথা উভয় পক্ষই উপকৃত হচ্ছে এক স্থান থেকে। 

তবে আপস্কিল এর সাথে কাজ করার আগে, কিভাবে এর সূচনা হয়, কেনইবা তাদের সাথে কাজ করবেন। কিভাবেই বা যুক্ত হবেন, এসব প্রশ্নের উত্তর গুলো জেনে নিন। চলুন জানি আপস্কিল সম্পর্কে।

Upskill কি?

আপস্কিল হল একটি পিয়ার টু পিয়ার স্কিল শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম। ব্যক্তিগত ও প্রতিষ্ঠানিক দক্ষতা শেয়ারিং এবং প্রযুক্তিগত জ্ঞান বিনিময় করার অন্যতম প্ল্যাটফর্ম Upskill। বাংলাদেশে স্কিল গ্যাপ পূরণ করতে নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। এটি মূলত একটি কাজে সীমাবদ্ধ নয়। আপস্কিল কারো জন্য একটি লার্নিং প্ল্যাটফর্ম, কারো জন্য আর্নিং।

upskill

আপনি যাদি একজন বিগিনার হন, এখানে আপনার জন্য আছে অসংখ্য স্কিল ডেভেলপমেন্ট কোর্স। ঘরে বসেই ডিজিটাল ভাবে দক্ষতা অর্জনের সূযোগ। লাইভ সেশন, ভিডিও, পিডিএফ কিংবা অ্যাসাইনমেন্ট আকারে আপনার জন্য শেখার অসংখ্য উপায় উন্মুক্ত করেছে আপস্কিল। 

তাছাড়া এটি এমন একটি প্ল্যাটফর্ম যেখানে আপনি একজন ট্রেইনার হিসবেও জয়েন করতে পারবেন। গড়তে পারবেন আপনার ক্যারিয়ার। একে তুলনা করা হয় Coursera এর সাথে। সংক্ষেপে Upskill এর একটি পরিচয় তো পেলাম। চলুন এবার বিস্তারিত জানা যাক। 

সূচনা

বাংলাদেশে ৫০ টির ও বেশি এডুকেশন স্টার্টআপ কোম্পানি রয়েছে। তার মধ্যে পরিচিত হয়ে ওঠার গল্পটা অবশ্যই ভিন্ন। এই প্রতিষ্ঠান টির সূচনা হয় ২০১৮ সালে। মুস্তাফিজুর রহমান, ফাইয়াজ তাহের ও সামাদ মিরালির চেষ্টায় গড়ো ওঠে এটি। লক্ষ ছিল বাংলাদেশের তরুন দের মধ্যে ডিজিটাল স্কিল ছড়িয়ে দেয়া। কাজের নতুন নতুন ক্ষেত্র তৈরি করে দেয়া।

online-course

তাদের ভাষ্যমতে, বাংলাদেশ এমন একটি দেশ যা, কর্মসংস্থানের দিক থেকে অনেক বেশি পিছিয়ে আছে। এর মূল কারণ দক্ষতার অভাব ও পর্যাপ্ত জবের অভাব। স্কিল আছে চাকরি নেই। কিংবা চাকরি প্রতিষ্ঠান আছে যোগ্য কর্মচারী নেই। এই পরিস্থিতিকে নিয়ন্ত্রণে আনার লক্ষেই আপস্কিল তৈরি করা হয়েছে। যাতে দেশের বড় একটি অংশের তরুন রা তাদের ক্যারিয়ার নিয়ে হতাশার মুক্ত হয়। 

সূচনা কালে খুব অল্প সংখ্যার কোর্স দিয়ে কাজ শুরু হয়। ধীরে ধীরে এর পরীধি বাড়তেই থাকে। এবং আপনারা দেখতে পারছেন আজকের আপস্কিল এর সাফল্য।  

আপস্কিল কিভাবে কাজ করে?

আপস্কিল একেক জনের কাছে একেক ভাবে গ্রহনযোগ্যতা পায়। কারো কাছে এটি একটি শেখার প্ল্যাটফর্ম। কারো কাছে স্কিল শেয়ার ও ইনকাম সোর্স। কিন্তু সর্বোপরি কিভাবে কাজ করে তারা সেটি জেনে নিন।  

আপস্কিল তাদের প্ল্যাটফর্মে ট্যালেন্টেড ট্রেইনার নিয়োগ করে। অবশ্যই সার্টিফাইড ও অভিজ্ঞতা সম্পন্ন। তারা তাদের কোর্সের বিভিন্ন উপায়ে প্রচারণা চালায়। এবং লার্নার রা তাদের ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে যার যার কাঙ্ক্ষিত কোর্সে এনরোল করে। এখানে আপনি চাইলে অনলাইন কিংবা অফলাইনে কোর্স করতে পারবেন। অফলাইনে কোর্স করতে চাইলে অবশ্যই তাদের হেডকোয়ার্টার এ যোগাযোগ করতে হবে। 

অনলাইন কোর্স করার জন্য, ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রথমে এনরোল করতে হবে এবং ফুল পেমেন্ট কিংবা কন্ডিশন পেমেন্ট করতে হবে। এরপর সুবিধা মত কোর্স করতে পারবে। চাইলে ভিডিও ক্লাস ডাউনলোড করে রাখতে পারবেন এবং সেশনে যুক্ত হয়ে প্রশ্নের মাধ্যমে কনসেপ্ট ক্লিয়ার করতে পারবেন। এবং কোর্স শেষে পেতে পারেন সার্টিফিকেট। যা আপনাকে পরবর্তী তে কোনো কাজে অভিজ্ঞতা তুলে ধরতে সাহায্য করবে।

অনলাইনে ওয়ার্কশপে অ্যাটেন্ড করতে চাইলে, ওয়ার্কশপ’ ট্যাবের নিচে, আপনি অতীত, বর্তমান এবং ভবিষ্যতের সব রকম ওয়ার্কশপ খুঁজে পাবেন। একটি আপকামিং ওয়ার্কশপে যুক্ত হতে চাইলে ‘ওয়ার্কশপ দেখুন’ অপশন টি তে ক্লিক করুন। আপনি সেখানে ‘নিবন্ধন করুন’ অপশন খুঁজে পাবেন। এখানে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে নিবন্ধন করতে পারেন। আপনি অবিলম্বে একটি কনফার্মেশন ইমেল পেয়ে যাবেন। 

এরপর আসে ট্রেইনার হিসেবে জয়েন করার সুযোগ। আপনার পর্যাপ্ত দক্ষতা থাকলে আপনিও তাদের সাথে কাজ করে আয় করতে পারবেন। এজন্য তাদের দেয়া জব সার্কুলার ফলো করতে হবে। তাছাড়া তারা সরাসরি যোগাযোগের মাধ্যমে হায়ার করাকেও প্রেফার করে। বর্তমানে তারা ওয়েবসাইটেই বিভিন্ন শর্ট টেস্ট ও ইন্টারভিউ এর সূযোগ করে দিয়েছে। ফলে কোনো ঝামেলা ছাড়াই ট্যালেন্টেড কর্মীরা জব পাচ্ছেন। 

সার্ভিস

আপস্কিল এর সার্ভিস বলতেই হচ্ছে তাদের কোর্স গুলো। চলুন দেখে নেই এখানে কি কি স্কিল ডেভেলপমেন্ট সার্ভিস রয়েছে। আপস্কিল এ ৩৪+ টপিকের ওপর কমপ্লিট ভিডিও সেশন করা আছে। আর এগুলো কোর্সের এনরোল করা মেম্বারদের সাথে শেয়ার করা হয়। 

এখানে –

সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট এন্ড ম্যানেজমেন্ট

ডিজিটাল মার্কেটিং 

ফান্ড রাইজিং 

টেক বিজনেস 

ই-কমার্স বিজনেস – আপনি চাইলে ” ই-কমার্স বিজনেস শুরু করুন – স্টেপ বাই স্টেপ কমপ্লিট গাইড ” এই ব্লগটি পড়ে আসতে পারেন

ভার্সেটাইল স্কিল ডেভেলপমেন্ট 

ইত্যাদি মডিউল রয়েছে। 

upskill এমন কিছু সময়োপযোগী কোর্স এড করেছে যা বাংলাদেশে কোনো প্ল্যাটফর্ম এখনও আনতে পারে নি। 

খুশির বিষয় এই যে তাদের ফাউন্ডার রা জানিয়েছেন, খুব শিগগিরই তারা ফ্রী কোর্স নিয়ে আসছেন৷ মানুষের প্রয়োজন ও সামর্থ্যের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্যই এই নতুন উদ্যোগ। 

ফান্ডিং

আপস্কিল সম্প্রতি প্রি- সিড তহবিলে একটি উল্লেখযোগ্য পরিমাণের ফান্ড এড করেছে। তবে তাদের ফান্ডিং এমাউন্ট বরাবরই অপ্রকাশিত।  

Upskill-এর প্রি-সীড তহবিল তিনজন মহিলা উদ্যোক্তা বিনিয়োগে অংশগ্রহণ করেন। এটি পুরুষ চালিত প্রযুক্তি ইকোসিস্টেমে একটি অভূতপূর্ব পদক্ষেপ বলে মনে করেন সংশ্লিষ্ট রা। সোনিয়া বশির কবির (সিইও এবং প্রতিষ্ঠাতা, এসবিকে টেক ভেঞ্চারস), অনিতা গাজী (সহ-প্রতিষ্ঠাতা, লিগ্যাল সার্কেল), এবং জিনিয়া চৌধুরী (সিইও, ইংলিশ এসেন্স) ছিলেন এই বিগ বাজেট প্রি-সিড রাউন্ডে অংশগ্রহণকারী বিনিয়োগকারী।

ফাউন্ডার সামাদ বলেন, স্টার্ট-আপ ইকোসিস্টেমে বৈচিত্র্যের ওপর আমরা বেশ জোর দিচ্ছি। আসলে একটি অল-ফিমেল তহবিল রাউন্ড তারা ইচ্ছাকৃতভাবে খুঁজছিল।

অর্জন 

হাতে গোনা কয়েকটি কোর্স ও কিছু বিশ্বাসযোগ্য ট্রেইনার নিয়ে যাত্রা শুরু হয়েছিল তাদের। বর্তমানে তাদের ৩৪+ রানিং ওয়ার্ক শপ চলছে। ২২ এর বেশি ট্রেনার নিয়মিত সেশন নিচ্ছেন। আর নিয়মিত-অনিয়মিত মিলে ৪৫+ মেন্টর রয়েছেন।

আপস্কিল

১৪০ ঘন্টার বেশি ভিডিও আপলোড করা আছে সাবসক্রাইবার দের জন্য। তাদের পরিধি এতটা বৃদ্ধি পেয়েছে যে প্রতি দুই মাস অন্তর Upskill ফ্রী ভিডিও আপলোড করছে। প্রতি ইউজার ব্যক্তিগত ভাবে এগুলোর একসেস পাচ্ছে। 

Upskill ইতোমধ্যে বড় বড় ফান্ডিং এরেঞ্জ করে ফেলেছেন। তাদের প্রি-সিড রাউন্ড ফান্ডিং রীতিমতো সারা ফেলে দিয়েছে। দেশের বাইরে থেকেও এখানে নিয়মিত নতুন নতুন মেম্বার যুক্ত হচ্ছে। একাধিক কোর্স এড করা হচ্ছে। মোট কথা স্টার্টআপ কোম্পানি হিসেবে জনপ্রিয়তা ও সার্ভিস দুটোই দিন দিন বিস্তৃত হচ্ছে।

Upskill এর সাথে কেন যুক্ত হবেন?

  • সময়োপযোগী স্কিল কোর্স
  • স্বল্প মূল্যে সাবস্ক্রাইব করার সুবিধা 
  • মান্থলি ডিসকাউন্ট 
  • প্রতি দুই মাস পরপর নতুন নতুন ফ্রী ভিডিওর একসেস
  • পুরাতন ইউজার ও অফলাইন স্টুডেন্ট দের জন্য বিশেষ ডিসকাউন্ট
  • স্কিলড ও অভিজ্ঞ ট্রেইনার থেকে শেখার সুযোগ 
  • ফ্রেন্ডলি ট্রেইনার ও প্রশ্ন করার সুবিধা
  • যেকোনো কোর্সের সকল ভিডিওর ওপরে ১২ মাসের অ্যাকসেস
  • ক্রেডিট কার্ড বা বিকাশের মাধ্যমে সহজ পেমেন্ট 
  • ওয়ার্কশপে এটেন্ড করে সার্টিফিকেট 
  • অনস্ক্রিন আলোচনা করার জন্য প্রতিদিন সেশনের সুযোগ 
  • এমন অনেক সময় আছে যখন আপনি সময় মত কোনো সেশনে অংশ নিতে পারেন নি। আপনার সুবিধার্থে সকল ভিডিও পুনরায় দেখার সূযোগ করে দিবে আপস্কিল লাইব্রেরি। 
  • মিস করা ভিডিও ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আপনার ইমেইল এ চলে যাবে। 

আপস্কিল এর সাথে থাকা তরুনদের ভবিষ্যৎ 

আপস্কিলের পেছনে থাকা পুরো দলটি প্রচন্ড আত্মবিশ্বাসী ও বৈচিত্র্যে বিশ্বাসী। তারা তাদের পরিশ্রম, ধৈর্য্য দিয়ে এত দূর নিয়ে এসেছে প্রতিষ্ঠান টিকে। নিয়মিত আপডেট করছে নতুন নতুন ওয়ার্কশপ। চেষ্টা করছে তাদের সার্ভিস সর্বোপরি তুলে ধরতে। দেশের মানুষের মধ্যে কর্মসংস্থান নিয়ে যে হতাশা, তা কিছুটা হলেও লাঘব করাই তাদের উদ্দেশ্য। 

তাদের কাজে আছে বৈচিত্র্য, দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের আভাস। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম কাজ করার ক্ষেত্রে প্রায়োরিটি দিচ্ছে সবাইকে। আপস্কিল-এ বিক্রয়, বিপণন এবং প্রযুক্তিতে মোট কর্মীর 50 শতাংশ মহিলা কর্মচারী। লার্নিং এন্ড আর্নিং উভয় ক্ষেত্রে সূযোগ দেয়া হচ্ছে সবাইকে। আর চাকরী বাজারে হতাশ তরুনেরা অনেকেই আশার আলো খুঁজে পেয়েছে আপস্কিলে প্রশিক্ষণ নেয়ার মাধ্যমে। 

learning-platfform-upskill

এছাড়াও আপস্কিল- “NRB Connect” নামে একটি নতুন উদ্যোগ শুরু করতে যাচ্ছে। যা প্রবাসী দক্ষ ব্যক্তিদের মাধ্যমে, লোকাল স্টুডেন্ট দের শেখানোর সূযোগ করে দেবে। মোট কথা দেশের বাইরে থেকেও, দেশের তরুনদের কর্মক্ষম করে তোলার একটি নতুন প্রচেষ্টা। দেশের মানুষ আন্তর্জাতিক পর্যায়ের কাজ শিখতে পারবে সহজে ও কম খরচে।

আর ইতোমধ্যে আরো বড় একাউন্টের ফান্ডিং এর ব্যবস্থা হচ্ছে বলেও Upskill জানিয়েছেন। সর্বোপরি Upskill এর সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা তাদের কে আরো এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। আশা করা যায় দেশের এই হতাশাজনক কর্মসংস্থান পরিস্থিতিতে আশার আলো হয়ে থাকবে আপস্কিল। 

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Comment

Your email address will not be published.

More To Explore

ইকমার্স বিজনেস
Uncategorized

ইকমার্স এর আদ্যোপান্ত; ২০২২ সালে ইকমার্স বিজনেস এর অবস্থান

এইতো ৫-১০ বছর আগের কথা, যখন ভালো কিছু কেনাকাটার জন্য আপনাকে যেতে হত বড় কোন শপিংমলে। সময় ক্ষেপণ, জ্যাম পেরিয়ে যাওয়া সহ আরও অনেক ভোগান্তি

Munchies
Entrepreneur

Munchies – ফার্স্ট লেট নাইট ফুড ডেলিভারি সার্ভিস

আপনি কি কখনও এমন কোনো ফুড ডেলিভারি সার্ভিসের কথা শুনেছন, যারা শুধু রাতেই ডেলিভারি দেয়? শুধু রাত বললে ভুল হবে, সন্ধ্যা থেকে ঠিক ভোর অবধি