fbpx

প্রিন্ট অন ডিমান্ড কি? কিভাবে প্রিন্ট অন ডিমান্ড বিজনেস শুরু করা যায়?

সংক্ষেপে প্রিন্ট অন ডিমান্ড

Share This Post

প্রিন্ট অন ডিমান্ড কি?

আমরা প্রায়ই সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে দেখি বিভিন্ন টাইপের টি-শার্ট সেল হয়ে থাকে, যার ডিজাইনগুলো কাস্টমাররা তাদের মন মতো বাছাই করে কিন্তু সেগুলোর কাস্টমাইজ করে অর্ডার করতে পারেন না। যেই ডিজাইন দেয়া থাকে তাই অর্ডার করেন আর সোজা আপনার হাতে পৌঁছায়। কিন্তু প্রিন্ট অন ডিমান্ড এই ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ ভিন্ন। প্রিন্ট অন ডিমান্ড হল এমন একটি বিজনেস মডেল যেখানে কিনা অন ডিমান্ডে কাস্টমারের প্রোডাক্টটি তৈরি করা হয় এবং কাস্টমারের কাছে সরবরাহ করা হয়। প্রিন্ট অন ডিমান্ডের দুইটি স্তর রয়েছে।

একটি হচ্ছে সেলার এবং অন্যটি ফুলফিল্মেন্ট পার্টনার। এখানে সেলার বলতে যে কিনা আপনার কাছে প্রোডাক্টের ডিজাইনগুলো তুলে ধরে প্রোডাক্টটি দেখতে কেমন তা ধারনা দিয়ে থাকে অপরদিকে ফুলফিল্মেন্ট পার্টনার এর দায়িত্ব হচ্ছে আপনার অর্ডার করা প্রোডাক্টটি তৈরি করে আপনার হাতে তুলে দেয়া পর্যন্ত। প্রিন্ট অন ডিমান্ড প্ল্যাটফর্মে শুধুমাত্র টি-শার্ট না, প্রায় ৩০০+ এর বেশী প্রোডাক্ট সেল করা সম্ভব। তাছাড়াও এই প্ল্যাটফর্মে গ্লোবাল মার্কেট ও লোকাল মার্কেটে কাজ করতে পারবেন। বাংলাদেশেও এর চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। গ্লোবাল মার্কেটে কাজ করবার জন্য গিয়ারলঞ্চ খুবই জনপ্রিয় একটি প্ল্যাটফর্ম এবং লোকাল মার্কেটে স্টাইলোপিক সাফ্যলের সাথে কাজ করে যাচ্ছে।

কেন প্রিন্ট অন ডিমান্ড?

প্রিন্ট অন ডিমান্ড দিন দিন আরও জনপ্রিয়তা হয়ে উঠছে। আমরা অনেক বিক্রেতাদের দেখি যে তারা বিশাল পন্য ভান্ডার নিয়ে তাদের দোকান সাজিয়ে তুলে, কিন্তু তা সত্ত্বেও অনেক গ্রাহক তাদের মন মতো পন্যটি খুজে পায় না। এছাড়াও মন মতো হলেও সাইজিং একটি বড় সমস্যা তৈরী করে থাকে। প্রিন্ট অন ডিমান্ড এই সকল সমস্যার সমাধান দিয়ে থাকে। প্রিন্ট অন ডিমান্ড কাস্টমারদের অন ডিমান্ডেই প্রোডাক্টটি তৈরি করে থাকে অর্থাৎ সাইটের থেকে অর্ডার করবার সময় তখন প্রোডাক্ট সাইজ, কালার, কাস্টমাইজ ডিজাইন নির্ধারন করে দিতে হয়।

যার কারনে আপনি ঘরে বসেই আপনার পছন্দমতো ডিজাইন, কালার, এবং সাইজিং সেট করে অর্ডার করতে পারবেন। এর কারনে আপনাকে বিজনেস শুরু করার ক্ষেত্রে এখন আর পণ্য কিনে ষ্টোর করতে হবে না। যাতে করে আপনার অনেক পরিমাণ টাকা বেচে যাচ্ছে। তাছাড়াও নতুন নতুন ডিজাইন আপলোড করবার মাধ্যমে আপনি আপনার কাস্টমারদেরকে নতুনত্ব দিতে পারবেন এবং আপনার এনগেজমেন্ট বৃদ্ধি করাতে পারবেন।

প্রিন্ট অন ডিমান্ড

এই চার্ট হতেই বোঝা যাচ্ছে যে নর্থ আমেরিকাতে পিওডি টি-শার্ট এর মার্কেট সাইজ কতটা বিশাল । ২০১৬ সালে প্রিন্টিং টেকনিকে টি-শার্ট ডিজাইন করা হয়েছে যার আয়ের পরিমান ৫৩৭ মিলিয়ন ডলার, কিন্তু ঠিক এক বছর পর সেই আয়ের পরিমান দাঁড়ায় ৫৮২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার যা পূর্বের আয়ের থেকে ৪৫ মিলিয়ন বেশি। আর এভাবেই প্রতি বছর মানুষ স্ক্রিন প্রিন্টিং থেকে সামনে আরো বেশী ডিজিটাল প্রিন্টিং করবার দিকে বেশী ঝুঁকবে।

তাছাড়াও টেক্সটাইল টেকনলোজী দিক দিয়েও আমেরিকান মার্কেট সাইজ ২০১৪ সালে ৩.৮৭ মিলিয়ন ডলার ছিল। কিন্তু তা বৃদ্ধি পেয়ে ২০১৫ সালে ৪.১৪ মিলিয়ন ডলারে প্রবেশ করে। যার পরিমান ভবিষ্যতে বৃদ্ধি পাবে নিঃসন্দেহে বলা যায়। প্রিন্ট অন ডিমান্ড সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে আমাদের প্রিন্ট অন ডিমান্ড মিনি কোর্স-টি করে ফেলুন।

প্রিন্ট অন ডিমান্ড কিভাবে কাজ করে থাকে?

প্রিন্ট অন ডিমান্ড কে প্রধানত দুইটি ভাগে ভাগ করা যায়। নিম্নে দুইটি ভাগ সম্পর্কে আলোচনা করা হল:

১. সেলার / ডিজাইনার

২. ফুলফিলমেন্ট পার্টনার

সেলারঃ প্রিন্ট ডিমান্ড বিজনেস শুরু করবার জন্য আপনাকে অবশ্যই এটা সম্পর্কে ভালো মতো জানতে হবে। ভিন্ন ভিন্ন প্ল্যাটফর্মে ভিন্ন ভিন্ন উপায়ে বিজনেস শুরু করতে হয়। ইন্টারন্যাশনাল প্ল্যাটফর্মের মধ্যে যেমন গিয়ারলঞ্চে একটি ডোমেইন দ্বারা আপনি বিজনেস শুরু করতে পারবেন। এরপর আপনাকে ষ্টোর সেট আপ করবার মাধ্যমে শুরু করতে হবে। আপনার ষ্টোর লাইভ হবার পর কিছু ডিজাইন আপলোড করে শুরু করে ফেলুন আপনার প্রিন্ট অন ডিমান্ড বিজনেসটি। এছাড়াও অন্যান্য অনেক প্ল্যাটফর্মে শুধুমাত্র ইমেইল দিয়েও আপনি বিজনেস স্টার্ট করতে পারেন। গিয়ারলঞ্চ সম্পর্কে আরো জানতে ক্লিক করুন Gearlaunch (গিয়ারলঞ্চ) এ।

রেডবাবল, জেজাল, প্রিন্টফুল, গোটেন, টিস্প্রিং, সোসাইটি সিক্স ইত্যাদি আরো অনেক প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে শুরু করতে পারেন। এছাড়াও আপনি ডিজাইন সম্পর্কে কোন প্রকার ধারনা না থাকলে আপনি ডিজাইনার সাথে সম্পৃক্ত হতে পারেন অথবা কিছু ডিজাইন সেলার সাইট রয়েছে যেখান থেকে রেডি ডিজাইন ক্রয় করে আপনার ষ্টোর সাজাতে পারবেন। ডিজাইন ক্রয় করবার জন্য “টিসামুরাই” সাইট অন্যতম।

প্রিন্ট অন ডিমান্ড নিয়ে এডভ্যান্স কোর্সের জন্য আজই যোগ দিন ওয়ান ডিজাইন এওয়ে চ্যালেঞ্জে।

ফুলফিল্মেন্ট পার্টনারঃ প্রিন্ট অন ন্ডিমান্ড বিজনেসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন একটি অংশ হচ্ছে ফুলফিল্মেন্ট পার্টনার। ফুলফিল্মেন্ট পার্টনার হচ্ছে এমন একটি বিজনেস পার্টনার যা আপনার কল্পনাকে বাস্তবে রুপান্তর করে তুলবে। আপনার স্টোরে সাজানো সকল পণ্যের যোগান দিবে আপনার ফুলফিলমেন্ট পার্টনার। তাই অবশ্যই বিজনেস আইডিয়া মাথায় আসবার পর দ্বিতীয় কাজ হচ্ছে আপনার পার্টনার কে হবে তা নির্ধারিন করা।

ইন্টারন্যাশনাল ফরমেটে অনেক ফুলফিল্মেন্ট পার্টনার সাফল্যর সাথে কাজ করে যাচ্ছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও কিছু কিছু জিনিস মাথায় রাখতে হবে আপনার পার্টনার বাছাই করবার সময়। তাদের ওয়্যারহাউজ এর পরিধি কতটুকু, তাদের প্রোডাক্ট কোয়ালিটি কেমন, তারা কী ধরনের প্রোডাক্ট ভেরিয়েন্ট আপনাকে অফার করে থাকে, তাদের কাস্টমার সার্ভিস কতটুকু কার্যকারী, তাদের প্রোডাক্ট ডেলিভারী টাইম কতদিনে হয়ে থাকে। সবকিছু আপনার মন মতো হলেই পার্টনারকে যুক্ত করে আপনার ব্যবসায় শুরু করে দিন। কারন প্রিন্ট অন ডিমান্ড বিজনেস এর সম্ভাবনা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

প্রিন্ট অন ডিমান্ড এর সুবিধা

প্রিন্ট অন ডিমান্ড

জিরো ইনভেস্টমেন্টঃ আমরা যুবসমাজ কোন ব্যবসায়ের শুরু করবার প্রথম সমস্যা হচ্ছে যে ইনভেস্টমেন্ট। আমাদের অনেকে ইনভেস্টমেন্টের অভাবের কারনে ব্যবসায় শুরু করতে পারেন না। প্রিন্ট অন ডিমান্ড এই সমস্যার বিশাল সমাধান নিয়ে এসেছে। প্রিন্ট অন ডিমান্ড ফরমেটে আপনি জিরো ইনভেস্টমেন্টে যে কোন প্ল্যাটফর্মের সাথে যুক্ত হয়ে বিজনেস শুরু করতে পারেন। আপনার শুধু প্রয়োজন আপনার নিজস্ব একটি পার্সোনাল ডোমেইন যেটা অনেক প্লাটফর্মে প্রয়োজন হয়েও না।

কাস্টমার সেটিস্ফেকশনঃ প্রিন্ট অন ডিমান্ডের আরেকটি বড় সুবিধা হচ্ছে কাস্টমার সেটিস্ফেকশন। কাস্টমার তাদের প্রয়োজনমত যেহেতু প্রোডাক্ট অর্ডার করতে পারছে। তাই এই ক্ষেত্রে প্রোডাক্টের মান ঠিক রাখা হলে পরবর্তীতে তারাই আপনার স্থায়ী কাস্টমারে রূপান্তরিত হবে।

ঝামেলাবিহীন ব্যস্থাপনাঃ যেহেতু আপনার ব্যবসায়ের সম্পূর্ন ফুলফিল্মেন্ট পার্টনার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে। তাই ব্যবসায়িক যত প্রকার ঝামেলা আছে তা থেকে আপনি দূরে থাকতে পারেন এবং আপনার ষ্টোরে মনযোগ দিতে পারবেন। তখন আপনার কাজ হচ্ছে বিভিন্ন প্রোডাক্ট ষ্টোরে নিয়ে আসা ও আই ক্যাচি ডিজাইন রেগুলারলি আপলোড করা।

তাই আজই প্রিন্ট অন ডিমান্ড বিজনেসে নিজেকে যুক্ত করে ফেলুন। প্রিন্ট অন ডিমান্ডে ভালো এক্সপেরিয়েন্স অর্জন করতে চাইলে গিয়ারলঞ্চের সাথে যুক্ত হতে পারেন। গিয়ারলঞ্চ একটি গ্লোবাল প্ল্যাটফর্ম যা মার্কেটে সাফল্যর সাথে বিজনেস পার্টনার হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়াও ডিজাইন সমস্যা সমাধানের জন্য টিসামুরাই সাইট আপনাকে সাহায্য করবে। গ্লোবাল মার্কেট ছাড়াও লোকাল মার্কেটে কাজ করতে ভিজিট করুন Stylopeak (স্টাইলোপিক) এ।
আজই প্রিন্ট অন ডিমান্ড এ বিজনেস করার মধ্যমে আয় করুন এবং নতুন উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলুন।

Don't wait!
Get the expert business advice You need in 2022

It's all include in our newsletter!

Leave a Comment

Your email address will not be published.

More To Explore

Sheba xyz
Startup Story

সেবা এক্স ওয়াই জেড ( sheba xyz ); সহজ ও আধুনিক লাইফস্টাইলের ধারক

বাংলাদেশে অনলাইন সার্ভিসিং এর সবচেয়ে জনপ্রিয় মার্কেটপ্লেস, সেবা এক্স ওয়াই জেড ( sheba xyz )। শুরু থেকেই এর অগ্রগতি ছিল চোখে পড়ার মত। ইতোমধ্যে উন্নত

DesignBold
Entrepreneur

অনলাইন ডিজাইন টুল “ডিজাইনবোল্ড” (DesignBold) কেন ব্যর্থ হয়েছিল?

ডিজাইনবোল্ড ( DesignBold ) হচ্ছে একটি অনলাইন গ্রাফিক্স ডিজাইন টুল। আমরা অনলাইনে অনেকেই অনেক ধরণের সাকসেস স্টোরি শুনে থাকি। কিন্তু সবাই তো আর সাকসেস হয়